মাতৃভাষা দিবসে নাশকতার হুমকি নেই: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
বুধবার, ১৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

মাতৃভাষা দিবসে নাশকতার হুমকি নেই: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

জাতীয় শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস যথাযথভাবে পালনের জন্য শহীদ মিনার এলাকাসহ দেশের সব বিভাগীয় শহর, জেলা, উপজেলায় বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

তিনি বলেন, মাতৃভাষা দিবসে নাশকতার কোনো হুমকি নেই। তবে যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবিলায় আমরা প্রস্তুত রয়েছি। দিবসটির নিরাপত্তায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও গোয়েন্দা সংস্থাগুলো সতর্ক থাকবে।

আজ সোমবার (১০ ফেব্রুয়ারি) সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস-২০২০ সুষ্ঠুভাবে উদযাপন উপলক্ষে সার্বিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি বিষয়ক সভা শেষে এসব কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, আজ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে জাতীয় শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস যথাযথভাবে পালন নিশ্চিত করতে সভা করা হয়েছে। প্রতিবারই আমরা এ সভা করে থাকি। রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা নিবেদনের সময় বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে। এছাড়া ভিআইপি, রাজনৈতিক দলের নেতাদের আগমন, বিদেশী কূটনীতিকদের শ্রদ্ধা নিবেদনের সময় বিশেষ নিরাপত্তার ব্যবস্থা থাকবে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষেরও নিজস্ব ব্যবস্থা থাকবে।

‘শুধু তাই নয় শহীদ মিনার এলাকাসহ দেশের সব বিভাগীয় শহর, জেলা, উপজেলায় বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে। কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকাসহ সব স্থানে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হবে। কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার ও তার আশেপাশের এলাকায় সিসিটিভি ক্যামেরা স্থাপন করা হবে। দেশের যে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অমর ২১শে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয় সে অনুষ্ঠানগুলোরও নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হবে।’

একুশের ফেব্রুয়ারি সংক্রান্ত সভা শেষে মন্ত্রী আরও জানান, এখন আরও একটি সভা হবে। তুরস্কের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আমাদের দেশে আসছেন। আপনারা জানেন, তার নিমন্ত্রণে আমি তুরস্ক সফরে গিয়েছিলাম। তখন তিনি কথা দিয়েছিলেন বাংলাদেশে আসবেন। সেই অনুযায়ী আগামী ১৮ তারিখ আসবেন তিনি। সেটা নিয়েও আমরা সভা করবো।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন সংশোধনের বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সুষ্ঠু বিচারের স্বার্থে মামলা জট কমাতে আইনে কিছু সংযোজন বিয়োজন প্রয়োজন ছিল, সেটিই করা হয়েছে মাত্র। তবে আইনটি সংশোধনে যেটি নীতিগত অনুমোদন হয়েছে মতামতের জন্য তা আইন মন্ত্রণালয়ে আসবে, এরপর সংসদে যাবে। পরে সেটি সংসদীয় কমিটিতে গিয়ে আবার সংসদে আসবে। এরপর সংসদ পাস হলে তা কার্যকর হবে।

কারাগারগুলোতে বন্দিদের ধারণ ক্ষমতা বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, দেশের বর্তমান কারাগারগুলোতে ধারণ ক্ষমতার দ্বিগুণ কয়েদি আছে। যারমধ্যে অনেকে অনেকদিন আদালতে মামলাজটের জন্য জামিন পাচ্ছে না। এটি সংশোধন হলে মামলা জট কমে আসবে।

অর্থসূচক/কেএসআর

এই বিভাগের আরো সংবাদ