ArthoSuchak
বুধবার, ৮ই এপ্রিল, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

সিটি নির্বাচনের দিন ঢাকার বায়ুদূষণ ৬ গুণ কম ছিল

কেবলমাত্র গাড়ি বন্ধ থাকায় অন্যসময়ের তুলনায় সিটি নির্বাচনের দিন ঢাকার বায়ুদূষণের মাত্রা ছয় গুণ কম ছিল। এ ধরনের বিষয় আগেও লক্ষ্য করা গেছে। বছরের অন্য সময়ের তুলনায় ঈদের সময়ে রাজধানী ঢাকার বাতাসে দূষণের মাত্রা থাকে প্রায় অর্ধেকের চেয়েও কম।

এয়ার ভিজ্যুয়ালের সূচক অনুযায়ী, বুধবার (৫ ফেব্রুয়ারি) ঢাকার বায়ুমান সূচক ছিল ১৭৫। যা খুবই অস্বাস্থ্যকর বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। ১ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত সিটি নির্বাচনের আগের কয়েক দিনে যা ৩৫০-এ গিয়ে ঠেকেছিল। নির্বাচনের সময় তিন দিন মোটরসাইকেল বন্ধ এবং নির্বাচনের দিন সব ধরনের যানবাহন বন্ধ থাকায় ঢাকার কোথাও কোথাও মাত্রা ৫০ এর নিচেও ছিল।

পরিবেশবাদীরা বলছেন, যেহেতু দু’দিনের ভিন্ন পরিস্থিতিতেই বায়ুমান বাড়ানো সম্ভব হয়, সেহেতু দীর্ঘমেয়াদে এটি কীভাবে কার্যকর করা যায় সেই পরিকল্পনা করতে হবে।

বিশ্বব্যাংকের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিশ্বে বায়ু দূষণকবলিত শহরগুলোর মধ্যে ঢাকা অন্যতম। প্রতিবছর প্রায় ১৫ হাজার মানুষ মারা যায় বায়ুদূষণের কারণে। ৬৫ লাখ মানুষ গুরুতর ও ৮৫ লাখ মানুষ ভোগেন কম গুরুতর অসুস্থতায়। পরিস্থিতি বিবেচনায় ঢাকা ও এর আশেপাশের এলাকার বায়ুদূষণ কমাতে অভিন্ন নীতিমালা প্রণয়নের জন্য ২০১৯ এর নভেম্বরে পরিবেশ সচিবের নেতৃত্বে উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন কমিটি গঠনের নির্দেশও দেন হাইকোর্ট।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক ও বায়ুদূষণ বিষয়ক গবেষক অধ্যাপক আবদুস সালাম গণমাধ্যমকে বলেন, বায়ুর ক্ষতিকর উপাদানগুলোর মধ্যে মানবদেহের জন্য সবচেয়ে ক্ষতিকর হচ্ছে পিএম ২.৫। সিটি নির্বাচনের সময় ট্রান্সপোর্ট বন্ধ ছিল। ওই সময়ে পুরো শীতকালের মধ্যে দূষণের মাত্রা সবচেয়ে নিচে ছিল। কোনও কোনও জায়গায় এই মাত্রা ৫০ পিএম-এর নিচে ছিল। যা কিনা এমনিতেই ঢাকায় সবসময় ২০০ কাছাকাছি থাকে।

অর্থসূচক/কেএসআর

এই বিভাগের আরো সংবাদ