নির্বাচনে ৩০ শতাংশের বেশি ভোট পড়েনি: সিইসি
মঙ্গলবার, ২রা জুন, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

নির্বাচনে ৩০ শতাংশের বেশি ভোট পড়েনি: সিইসি

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ৩০ শতাংশের বেশি ভোট পড়েনি বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার সিইসি কে এম নুরুল হুদা। আজ শনিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশন ভবনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, এজেন্ট বের করে দেওয়ার ব্যাপারে আমাদের কাছে কোনো এজেন্ট অভিযোগ করেনি যে, কোন এজেন্টকে বার করে দিয়েছে। আমি যেখানে গিয়েছি সেখানে সব দলের এজেন্ট ছিল। কারণ আমি যেখানে ভোট দিয়েছি সেখানে জিজ্ঞেস করেছিলাম সেখানে বিএনপির এজেন্ট ছিল, আওয়ামী লীগের এজেন্ট ছিল। আর এজেন্টদের ভোটকেন্দ্রে যাওয়ার দায়িত্ব এজেন্টদেরই। আর ভোটকেন্দ্রে যদি গিয়ে থাকেন সেখান থেকে বের করে দিলে অভিযোগ করতে হবে। এরকম অভিযোগ আমি পাইনি। এজেন্টদের বিষয়ে নির্বাচন কমিশন কেউ অভিযোগ পায়নি।

তিনি বলেন, আমরা এতোক্ষণ টেলিভিশনের সামনে বসে ছিলাম। যারা ইভিএমে ভোট দিয়েছেন তারা কেউই ইভিএমের বিরোধীতা করেনি। ইভিএম যে খারাপ সে বিষয়ে বলেনি। কেউ বলেছে একটু জটিল একটু দেরি হয়েছে। অধিকাংশ লোক বলেছে যে, ইভিএমে ভোট দিয়ে স্বাচ্ছন্দবোধ করেছি এবং ইভিএমে সহজে সঠিকভাবে ভোট দেওয়া সম্ভব হয়। আর ইভিএমে কখনো এক জনের ভোট আরেকজনে দিতে পারে না। একজনের ভোট দেয়া হয়ে গেলে ওই লোক আর দ্বিতীয়বার ভোট দিতে পারে না। ভোট ভালো হয়েছে।

পারসেন্টেজ ৩০ এর নিচে থাকবে। উপচে যাবে না আমার মনে হয় যোগ করেন সিইসি।

সিইসি আরো বলেন, ভোট ভালো হয়েছে। ভোটার যারা গিয়েছে কোনো ভোটার ভোট না দিয়ে আসেনি। যারা গিয়েছেন তারা ভোট দিয়েছেন। কোনো ভোটার বলেনি যে আমি ভোট দিতে পারিনি।

সাংবাদিকদের আরেক প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, পল্টনে কি হয়েছে সেটাতো এখান থেকে বলতে পারবো না। সেটা তো তদন্তের বিষয় আছে।

ফিঙ্গার প্রিন্ট রেখে ভোটারদের বের করে দেয়া হয়েছে অনেকে এমন অভিযোগ করেছেন। এ বিষয়ে জানতে চাইলে সিইসি বলেন, না, এমন অভিযোগ পাইনি।

একটি রাজনৈতিক দল নির্বাচন পরিচালনায় ব্যর্থতার জন্য আপনাকে পদত্যাগ করতে বলেছেন। আপনি কি পদত্যাগ করবেন? এমন প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, না।

অর্থসূচক/এমএস

এই বিভাগের আরো সংবাদ