ArthoSuchak
বৃহস্পতিবার, ২রা এপ্রিল, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

মার্চের মধ্যে ঋণ বিতরণের আবেদন করবে পদ্মা ব্যাংক

২০২০ সালের মার্চ মাসের মধ্যে ঋণ বিতরণের অনুমতি চেয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকে আবেদন করবে পদ্মা ব্যাংক। বর্তমানে ব্যাংকের সার্বিক অবস্থা ভালো হাওয়াই ঋণ বিতরণের দিকে যেতে চায় ব্যাংকটি।

আজ মঙ্গলবার রাজধানীর ওয়েস্টিন হোটেলে পদ্মা ব্যাংকের প্রথম বার্ষিক বিজনেস কনফারেন্সে এসব কথা বলেন পদ্মা ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এহসান খসরু।

এহসান খসরু বলেন, ২০১৮ সালে আমাদের ব্যাংকের ঋণ পুনঃতফসিলের পরিমাণ ছিল ৩৭৫ কোটি টাকা। কিন্তু ২০১৯ সালে এটি বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮০০ কোটি টাকায়। ২০২০ সালে এর পরিমাণ ১ হাজার ১০০ কোটি টাকায় উন্নীত হবে বলে আশা ব্যক্ত করেন তিনি। এছাড়াও ২০২০ সালে ৪০৫ কোটি টাকা ক্যাশ রিকভারি করতে চাই। বর্তমানে আমাদের ব্যাংকের অ্যাডভান্স ডিপোজিট রেশিও আগের তুলনায় অনেক ভালো।

২০২০ সালের মধ্যে এডিআর ১০০ শতাংশের নীচে নামিয়ে আনবো বলেও জানান তিনি।

অন্যদিকে ব্যাংকের আমানত দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। ২০২০ সালে ব্যাংকিং খাতের সেরা ডিজিটাল ব্যাংক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করার প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন এহসান খসরু।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সিনিয়র সচিব আসাদুল ইসলাম বলেন, আপনাদের উন্নতি প্রশংসা করার মত। তবে লক্ষ্যমাত্রার কথাগুলো যেন কথার মধ্যেই সীমাবদ্ধ না থাকে। আমরা চাই দেশের প্রত্যেকটি ব্যাংক ভালো করুক। পদ্মা ব্যাংক ঘুরে দাঁড়িয়ে দেখিয়ে দিবে এটাই আমার প্রত্যাশা।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, অর্থনৈতিক খাতে আমরা আসলেই পিছিয়ে আছি। তবে সবকিছু হারিয়ে যায়নি। এ বছরেও প্রবৃদ্ধিতে বিশ্বের মধ্যে সর্বোচ্চ স্থানে থাকবে বাংলাদেশ। অর্থনীতি সুশাসন নিয়ে আসতে নীতিগত পরিবর্তনের কিছু কাজ চলছে। এখন আমরা সবাইকে সতর্ক করছি। আইনগুলো পাস হয়ে গেলে আমাদের কাজ আরও সহজ হয়ে যাবে। দুর্নীতিবাজরা ভুক্তভোগী হবে তখন।

অর্থমন্ত্রী আরো বলেন, ব্যাংকের পুঁজি নগদ টাকা নয় বরং বিশ্বাস। প্রয়োজনে পদ্মা ব্যাংকের স্লোগান পরিবর্তন করার পরামর্শ দেন তিনি। আসুন আমরা সবাই ঘুরে দাঁড়াই এরকম স্লোগান দিতে পারেন। ভালো করতে পারলে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হওয়ার পরামর্শ দেন তিনি। রাস্তা হারানো যাবেনা, গন্তব্য ঠিক রেখে সামনে এগিয়ে যান।

প্রথম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে দুইটি নতুন পণ্যের উদ্বোধন করে পদ্মা ব্যাংক। এর মধ্যে একটি তিন বছর মেয়াদী সুপারফাস্ট স্কিম এবং অন্যটি পদ্মা প্রতিদিন।

দুর্নীতির দায়ে ২০১৭ সালের ৫ জানুয়ারি থেকে ব্যাংকটির সকল ধরনের ঋণ বিতরণ কার্যক্রম বন্ধ করে দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক। এখনো পর্যন্ত সব ধরনের ঋণ বিতরণ কার্যক্রম বন্ধ আছে ব্যাংকটির।

অর্থসূচক/জেডএ/এমএস

এই বিভাগের আরো সংবাদ