‘রোগের প্রাদুর্ভাব যেন উন্নতিকে বাধাগ্রস্থ না করতে পারে’
মঙ্গলবার, ১৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

‘রোগের প্রাদুর্ভাব যেন উন্নতিকে বাধাগ্রস্থ না করতে পারে’

টেকসই ভাবে দারিদ্র্য বিমোচনে গবাদিপশু পালন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। তাই রোগের প্রাদুর্ভাব যেন এই খাতের উন্নতিকে বাধাগ্রস্থ করতে না পারে সেই লক্ষ্যে খামারি পর্যায়ে ব্যাপক সচেতনতা বৃদ্ধির নির্দেশনা দিয়েছেন পল্লীকর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশনের (পিকেএসএফ) ব্যবস্থাপনা পরিচালক মঈনউদ্দীন আবদুল্লাহ।

আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর আঁগারগাওয়ে পিকেএসএফ ভবনে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ ইউনিট এলএসডি’র প্রভাব এবং তা কার্যকরভাবে প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণের লক্ষ্যে আয়োজিত কর্মশালা প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

পিকেএসএফের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বলেন, একসময় গবাদি পশুর জন্য পার্শ্ববর্তী দেশের ওপর নির্ভরশীল ছিলো। তাঁদের রপ্তানি বন্ধের সিদ্ধান্ত এদেশের জন্য আশির্বাদ হিসেবে আবির্ভূত হয়েছে। বর্তমানে গবাদিপশু পালন গ্রামীন পর্যায়ে দারিদ্র গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে।

অনু্ষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব কাজী ওয়াছি উদ্দিন বলেন, এ রোগের প্রাদুর্ভাব রোধ করতে প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইন্সটিটিউট ভ্যাক্সিন উদ্ভাবনের চেষ্টা করছে। তবে বর্তমান পরিস্থিতি মোকাবেলায় গোটপক্স ভেক্সিন দিয়ে এ রোগ প্রতিরোধের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এ পর্যন্ত ৫ লক্ষ গোটপক্স ভ্যাক্সিন মাঠ পর্যায়ে প্রদান করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

বর্তমানে দেশের গরু, মহিষ ইত্যাদি প্রাণী লাম্পি স্কিন ডিজিজ (এলএসডি)-এর ব্যাপক ভাবে আক্রান্ত হচ্ছে। এলএসডি হলো বসন্ত রোগের ভাইরাস দ্বারা সৃষ্ট এক ধরনের সংক্রামক রোগ। এ রোগে আক্রান্ত প্রাণীর নানাবিধ সমস্যা দেখা দিয়েছে যা খামারীদের ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করছে।

প্রাথমিকভাবে গরু, জলা মহিষ, জিরাফ ইত্যাদি প্রাণী লাম্পি স্কিন ডিজিজ-এ আক্রান্ত হয়ে থাকে। সম্প্রতি বাংলাদেশে এর সংক্রমণ ব্যাপক আকারে ছড়িয়ে পড়ছে। আক্রান্ত প্রাণীর চামড়া ও চামড়ার নিচে গোলাকার গোটা দেখা দেয়, আক্রান্ত প্রাণী শুকিয়ে যায় এবং চামড়ার ক্ষতি হয়। সাধারণত উষ্ণ ও আর্দ্র মৌসুমে এই রোগ বেশি দেখা দেয়। দেশে আগামী বৃষ্টি ও বন্যার সময় এ রোগের প্রাদুর্ভাব বৃদ্ধি পেতে পারে বলে কর্মশালায় আশঙ্কা প্রকাশ করেন আলোচকরা।

অনুষ্ঠানে ইমপেক্ট অফ লাম্পি স্কিন ডিজিজেস অন লাইভস্টক প্রোডাকশন এন্ড ইটস্‌ কন্ট্রোলিং মেজারস্‌ ইন বাংলাদেশ- শীর্ষক প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইন্সটিটিউট (বিএলআরআই)-এর প্রাণিস্বাস্থ্য গবেষণা বিভাগের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ও বিভাগীয় প্রধান ড. মো. গিয়াস উদ্দিন এবং প্রবন্ধের ওপর আলোচনা করেন বিএলআরআই’র মহাপরিচালক ড. নাথু রাম সরকার ও প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডাঃ আবদুল জব্বার শিকদার। প্রাণিসম্পদ উন্নয়নের মাধ্যমে টেকসই উন্নয়ন অর্জনে পিকেএসএফের ভূমিকার ওপর উপস্থাপনা প্রদান করেন প্রতিষ্ঠানটির মহাব্যবস্থাপক ড. শরীফ আহম্মদ চৌধুরী।

অর্থসূচক/এমআরএম

এই বিভাগের আরো সংবাদ