রোহিঙ্গা গণহত্যা: আইসিজের রায় পড়া শুরু
বৃহস্পতিবার, ২৭শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

রোহিঙ্গা গণহত্যা: আইসিজের রায় পড়া শুরু

রাখাইনে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে গণহত্যার অভিযোগ সংক্রান্ত মামলায় অন্তর্বর্তীকালীন আদেশ পড়া শুরু করেছেন জাতিসংঘের সর্বোচ্চ আদালত ইন্টারন্যাশনাল কোর্ট অব জাস্টিস (আইসিজে)।

আজ বৃহস্পতিবার (২৩ জানুয়ারি) বাংলাদেশ সময় বেলা ৩টায় এ আদেশ পড়া শুরু করেন আন্তর্জাতিক সর্বোচ্চ এ আদালত। এর আগে শুনানিতে মামলাকারী গাম্বিয়ার পক্ষ থেকে ৫টি বিষয়ে আদেশ চাওয়া হয়েছিল।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বিশ্লেষকরা বলেছেন, রাখাইনে নতুন করে যেন আর কোনও গণহত্যা সংঘটিত না হয়, আদালতের অন্তর্বর্তী আদেশে তার প্রতিফলন ঘটতে পারে। তারা মনে করছেন, আইসিজের পক্ষ থেকে সুনির্দিষ্ট কোনও আদেশ এলে মিয়ানমারের পক্ষে তা উপেক্ষা করা সহজ হবে না। আর নেপিদো আদেশ বাস্তবায়ন না করলেও পরে অন্য পদক্ষেপ নেওয়ার সুযোগ থাকবে গাম্বিয়ার।

পশ্চিম আফ্রিকার দেশ গাম্বিয়া ১১ নভেম্বর আন্তর্জাতিক বিচারিক আদালতে মামলা করে। মিয়ানমার গণহত্যা, ধর্ষণ এবং সম্প্রদায় ধ্বংসের মাধ্যমে ‘রোহিঙ্গাদের একটি দল হিসাবে ধ্বংস করার উদ্দেশ্যে’ ‘গণহত্যামূলক কাজ’ করেছে বলে অভিযোগ করে মামলায়।

গাম্বিয়ার দায়ের করা মামলার শুনানির জন্য ১০ ডিসেম্বর থেকে ১২ ডিসেম্বর পর্যন্ত তারিখ নির্ধারণ করা হয়। প্রথম ধাপে ১০ ডিসেম্বর শুনানি করে গাম্বিয়া। আর ১১ ডিসেম্বর শুনানি করে মিয়ানমার। এ শুনানির পর মিয়ানমার এ ইস্যুতে কী করবে তা জানাচ্ছে আইসিজে।

২০১৭ সালে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে দেশটির সেনাবাহিনী নৃশংস নির্যাতন চালায়। নৃশংসতা থেকে বাঁচতে প্রতিবেশী দেশ বাংলাদেশে কয়েক লাখ রোহিঙ্গা আশ্রয় নেয়। বিগত তিন দশক ধরে মিয়ানমার এই জনগোষ্ঠীর ওপর নির্যাতন চালাচ্ছে।

এর সূত্র ধরে পশ্চিম আফ্রিকার দেশ গাম্বিয়া মিয়ানমারের এই হত্যাযজ্ঞকে ‘গণহত্যা’ বলে অভিহিত করে এবং এর বিচার চেয়ে জাতিসংঘের আন্তর্জাতিক বিচারিক আদালতে (আইসিজে) ‘গণহত্যা’র মামলা করে।

মামলার ৪৫ পৃষ্ঠার আবেদনে গাম্বিয়া উল্লেখ করে, মিয়ানমার গণহত্যা, ধর্ষণ এবং সম্প্রদায় ধ্বংসের মাধ্যমে ‘রোহিঙ্গাদের ধ্বংস করার উদ্দেশ্যে’ ‘গণহত্যা’ চালায়।

এ মামলার পক্ষে কথা বলছে মিয়ানমারের অভ্যন্তরীণ বিদ্রোহী গোষ্ঠীগুলো। বিশেষ করে দেশটির বিদ্রোহী কারেন জনগোষ্ঠী গাম্বিয়ার এ মামলাকে স্বাগত জানিয়েছে।

অর্থসূচক/কেএসআর

এই বিভাগের আরো সংবাদ