সংসদে ৮২৩৮ ঋণখেলাপির তালিকা প্রকাশ
শনিবার, ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

সংসদে ৮২৩৮ ঋণখেলাপির তালিকা প্রকাশ

জাতীয় সংসদে ৮ হাজার ২৩৮ প্রতিষ্ঠানের তালিকা দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। এসকল প্রতিষ্ঠান ঋণখেলাপী হিসেবে তালিকাভুক্ত। বাংলাদেশের সকল ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান হতে প্রাপ্ত সিআইবি ডাটাবেইজের ২০১৯ সালের নভেম্বর পর্যন্ত হালনাগাদ তথ্য থেকে এসব কথা জানান মন্ত্রী।

আজ বুধবার (২২ জানুয়ারি) সংসদে টাঙ্গাইল-৬ আসনের সংসদ সদস্য আহসানুল ইসলাম টিটুর লিখিত প্রশ্নের জবাবে এসব তথ্য তুলে ধরেন অর্থমন্ত্রী। এ সময় অর্থমন্ত্রী ১০৭ পৃষ্ঠার ঋণখেলাপির বিস্তারিত তালিকা সংসদে উত্থাপন করেন। সেই তালিকায় উল্লেখ করা হয়েছে কে কত টাকা ঋণখেলাপি।

সরকারি দলের সংসদ সদস্য আহসানুল ইসলাম টিটুর প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, যেসব কোম্পানি ঋণখেলাপি করেছে তাদের খেলাপি ঋণের পরিমাণ ৯৬ হাজার ৯৮৬ কোটি ৩৪ লাখ টাকা ও পরিশোধিত ঋণের পরিমাণ ২৫ হাজার ৮৩৬ কোটি ৪ লাখ টাকা।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ২০১৯ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর থেকে ত্রৈমাসিকের তথ্য অনুযায়ী ২৫টি ব্যাংকের পরিচালকরা নিউ ব্যাংক থেকে ঋণ গ্রহণ করেছেন। তাদের গৃহীত ঋণের বকেয়া স্থিতির পরিমাণ এক হাজার ৬১৪ কোটি ৭৭ লাখ ১৭ হাজার টাকা, যা মোট ঋণের ০.১৬৬৬ শতাংশ। এছাড়া ব্যাংকের পরিচালকরা নিজ ব্যাংক ব্যতীত অন্য ৫৫টি ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়েছেন। তাদের গৃহীত ঋণের উপস্থিতির পরিমাণ এক লাখ ৭১ হাজার ৬১৬ কোটি ১২ লাখ ৪৭ হাজার টাকা, যা ব্যাংকসমূহের মোট প্রদেয় ঋণের ১১.২১ শতাংশ।

সংসদে দেওয়া তথ্যানুযায়ী- রিমেক্স ফুটওয়্যার, ক্রিসেন্ট লেদার প্রডাক্টস, রূপালী কম্পজিট লেদারওয়্যার লিমিটেড, রাইজিং স্টিল লিমিটেড, মোহাম্মদ ইলিয়াম ব্রাদার্স (পিভিটি) লিমিটেড, এস এ ওয়েল রিফাইনারি লিমিটেড, সামনাজ সুপার ওয়েল লিমিটেড, কোয়ান্টাম পাওয়ার সিস্টেম লিমিটেড, অ্যালো কোট লিমিটেড, গ্যালাক্সি স্যুটওয়্যার এন্ড ইয়ার্ন ডাইং, বুলট্রেড ইঞ্জিনিয়ারিং লিমিটেডসহ ৮ হাজার ২৩৮টি কোম্পানি এই তালিকায় রয়েছে।

অর্থসূচক/কেএসআর

এই বিভাগের আরো সংবাদ