ভৈরবে গণধর্ষণের শিকার এক শিশু
শুক্রবার, ১৪ই আগস্ট, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

ভৈরবে গণধর্ষণের শিকার এক শিশু

কিশোরগঞ্জের ভৈরবে ১৩ বছর বয়সী এক শিশু গণধর্ষণের শিকার হয়েছে। ধর্ষণের ঘটনায় আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে শিশুটির খালা বিলকিছ বেগম বাদী হয়ে অজ্ঞাত ৪জনের বিরুদ্ধে ভৈরব রেলওয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

গতকাল বুধবার গভীর রাতে পৌর শহরের জগন্নাথপুর (তাঁতারকান্দী) গ্রামের রেল লাইনের পাশে এই ঘটনাটি ঘটে। ধর্ষিতা শিশুটির বাড়ি সুনামগঞ্জের ধিরাই উপজেলার বোয়ালি গ্রামে।

শিশুটির খালা বিলকিছ বেগম জানান, গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় তার ভাগ্নি রাগ করে বাসা থেকে বেরিয়ে যায়। পরে বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করে রাতে তার খোঁজ পাওয়া যায়নি। সকালে ভৈরব থেকে পুলিশ ঘটনা জানালে তিনি থানায় আসেন। তিনি এ সময় এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তার করে কঠোর শাস্তি দাবী করেন।

গণধর্ষণের সত্যতা নিশ্চিত করে ভৈরব রেলওয়ে থানার ওসি ফেরদাউস আহমেদ বিশ্বাস জানান, শিশুটি তার খালার বাসা টঙ্গি থেকে ভৈরব বাসস্ট্যান্ডে নামে। এসময় রাত আনুমানিক ৮টা। পরে মেয়েটি সিলেটের বাসে উঠতে এক রিকসাওয়ালার সহযোগিতা চায়। রিকসাচালক তাকে রিকসায় উঠানোর সময় সহযাত্রী হয়ে যুবক উঠে। পরে মেয়েটিকে সিলেট বাসস্ট্যান্ডে পৌছে না দিয়ে উল্টো দিকে জগন্নাথপুর (তাঁতারকান্দী) রেল লাইনের কাছে একটি নির্জন ঝোঁপে নিয়ে যায়।

ওসি আরও জানান, পরে মুখ চেপে ধরে কয়েকজন পালাক্রমে ধর্ষণ করেছে বলে দাবী শিশুটির। ধর্ষণ শেষে স্থানীয় এক ব্যক্তিকে দেখে পালিয়ে যায় ধর্ষকরা। পরে রাত দেড়টার দিকে শিশুটিকে রেলওয়ে থানায় নিয়ে আসেন এক ব্যক্তি। ঘটনা জানার পর শিশুটিকে চিকিৎসার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায় পুলিশ। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসায় ধর্ষণের আলামত পাওয়া যায় বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক।

এবিষয়ে জানতে চাইলে ভৈরব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. তামজীদুস সিফাত জানান, ভিকটিমকে গতকাল বুধবার রাত সাড়ে ৩টার দিকে পুলিশ হাসপাতালে নিয়ে আসে। প্রাথমিক পরীক্ষায় তার দেহের কোথাও আঘাতের আলামত পাওয়া না গেলেও, পার্সনাল পার্টসে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। আরও নিশ্চিত হওয়ার জন্য তাকে কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতালে পরীক্ষার জন্য রেফার্ড করা হয়েছে।

অর্থসূচক/এমএস

এই বিভাগের আরো সংবাদ