সাত মাস আগেই সোলাইমানিকে হত্যার নির্দেশ দিয়েছিলেন ট্রাম্প
সোমবার, ২০শে জানুয়ারি, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

সাত মাস আগেই সোলাইমানিকে হত্যার নির্দেশ দিয়েছিলেন ট্রাম্প

গত তিন জানুয়ারি বাগদাদ বিমান বন্দরের কাছে মার্কিন ড্রোন হামলায় ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি’র কুদস ব্রিগেডের প্রধান জেনারেল কাসেম সোলাইমানি নিহত হন। সোলাইমানি মার্কিন দূতাবাসে হামলা চালানোর পরিকল্পনা করছিলেন এমন অভিযোগ তুলে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্দেশে ওই হত্যাকাণ্ড চালানো হয়।

ট্রাম্প দাবি করেন, সোলাইমানি বিশ্ব শান্তির জন্য একজন ভয়ঙ্কর ব্যক্তি হয়ে উঠছিলেন বলে তাকে দুনিয়া থেকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে। জেনারেল সোলাইমানি মার্কিন সামরিক ঘাঁটিতে এবং আমেরিকার অন্তত চারটি দূতাবাসে হামলার পরিকল্পনা করেছিলেন। আরো ২০ বছর আগে সোলাইমানিকে হত্যা করা উচিত ছিল।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও বলেছেন, সোলাইমানিকে হত্যার মাধ্যমে আমেরিকার একজন শত্রুকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে যে কিনা প্রবল প্রতিরোধ গড়ে তুলেছিলেন এবং চীন ও রাশিয়ার ক্ষেত্রেও একই কথা প্রযোজ্য।

তবে মার্কিন এনবিসি টিভি চ্যানেল জানিয়েছে, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প গত জুনে অর্থাৎ প্রায় সাত মাস আগে জেনারেল সোলাইমানিকে হত্যার নির্দেশে দিয়েছিলেন। ইরানের আকশসীমায় প্রবেশের দায়ে ইরানের নিরাপত্তা বাহিনী পারস্য উপসাগরে মার্কিন অত্যাধুনিক গ্লোবাল হক ড্রোন ভূপাতিত করার পর ট্রাম্প বলেছিলেন, ইরান কিংবা দেশটির অনুগত সশস্ত্র কোনো গ্রুপ যদি মার্কিন সামরিক কিংবা বেসামরিক কোন ব্যক্তিকে হত্যা করে তাহলে ইরানের জেনারেল সোলাইমানিকে যেন হত্যা করা হয়।

অর্থসূচক/এএইচআর

এই বিভাগের আরো সংবাদ