'পুঁজিবাজারের মন্দায় বীমা কর্মকর্তার আত্মহত্যা'
মঙ্গলবার, ২৮শে জানুয়ারি, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

‘পুঁজিবাজারের মন্দায় বীমা কর্মকর্তার আত্মহত্যা’

পুঁজিবাজারে চলমান মন্দায় মানসিকভাবে বিপর্যস্ত একজন বিনিয়োগকারী ‘আত্মহত্যা’র ঘটনা ঘটেছে বলে খবর পাওয়া গেছে। আজ সোমবার  রাজধানীর বনানীতে বিটিআই টাওয়ারে অবস্থিত নিজ অফিসের ১১তলার জানালা দিয়ে লাফ দিয়ে হুমায়ুন কবির (৫২) নামের ওই ব্যক্তি আত্মহত্যা করেছেন। তিনি স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেকের পরিবারের মালিকানাধীন নির্বাহী পরিচালক ও আইটি বিভাগের প্রধান ছিলেন।

তবে সানলাইফ ইন্স্যুরেন্স কর্তৃপক্ষ হুমায়ুন কবিরের মৃত্যুর সঙ্গে পুঁজিবাজারের কোনো সম্পর্ক নেই বলে দাবি করেছেন।

সোমবার দুপুরে বনানীর ২৯ কামাল আতাতুর্ক এ্যাভিনিউয়ের বি টি এ টাওয়ারে এই ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

বনানী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নুরে আজম মিয়া হুমায়ুন কবিরের লাশ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন,দুপুরে বনানীর বি টি এ টাওয়ারের ১১ তলায় সানলাইফ ইন্স্যুরেন্সের অফিসের জানালা দিয়ে হুমায়ুন কবির নামের ‌ওই কর্মকর্তা হঠাৎ নিচে লাফিয়ে পড়েন বলে জেনেছি।তিনি প্রতিষ্ঠানটির আইটি প্রধান হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

ওসি নুরে আজম আরো বলেন, প্রাথমিক তদন্তে এ ঘটনাকে আত্মহত্যা বলেই ধারণা করছি। তার লাফিয়ে পড়ার পেছনে কারও প্ররোচনা বা অন্য কিছু পাইনি। হতাশার কারণে এমনটি হয়ে থাকতে পারে। তবে প্রকৃত কারণ সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়ার চেষ্টা চলছে।

সানলাইফ ইন্স্যুরেন্সের মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) একেএম শরিফুল ইসলাম বলেন, হুমায়ুন কবির আমাদের কোম্পানির আইটি বিভাগের প্রধান ছিলেন। ঘটনার সময় তিনি রুমে একাই ছিলেন। কি কারণে তিনি এমন করলেন, সে বিষয়ে কিছুই বলতে পারছি না। শেয়ারবাজারে তার বিনিয়োগ ছিল কিংবা বাজার পরিস্থিতির কারণে তিনি আত্মহত্যা করেছেন-এমন কোনো তথ্য আমাদের জানা নেই।

তবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সানলাইফ ইন্স্যুরেন্সের একজন কর্মকর্তা বলেছেন, শেয়ারবাজারে মন্দার কারণে বেশ কিছু দিন ধরেই হুমায়ুন কবিকর মনমরা ছিলেন। সম্প্রতি তিনি মানসিকভাবে বেশ বিপর্যস্ত হয়ে পড়েন। তাই তার আত্মহত্যার ঘটনার পেছনে বাজার পরিস্থিতি একটি কারণ হয়ে থাকতে পারে।

এই বিভাগের আরো সংবাদ