শিশু অপহরণের দায়ে নারীকে জরিমানা ও যাবজ্জীবন
বৃহস্পতিবার, ২৩শে জানুয়ারি, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

শিশু অপহরণের দায়ে নারীকে জরিমানা ও যাবজ্জীবন

কুষ্টিয়া দৌলতপুর থানার প্রতিবেশী এক নারীকে শিশু অপহরণের দায়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাঁকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। আজ সোমবার দুপুরে কুষ্টিয়া নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালতের বিচারক মুন্সি মো. মশিয়ার রহমান আদালতে আসামীর উপস্থিতিতে এই রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত ওই নারীর নাম দৌলতপুর উপজেলার খলিশাকুন্ডি পূর্ব মন্ডলপাড়া গ্রামের চাঁদ আলীর কন্যা বেদেনা খাতুন ওরফে লিমা (৩৮)। এই মামলায় অপর ৩ আসামী ঠেকারী খাতুন, চাঁদ আলী ও আব্দুর রশিদদের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ প্রমানিত না হওয়ায় তাদের বে-কসুর খালাস দিয়েছেন আদালত।

আদালত সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, ২০১৮ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর খলিশাকুন্ডি গ্রামের ছমির আলীর স্ত্রী বিনা খাতুন তাঁর ছয় মাস বয়সী শিশুপুত্র কর্ণকে ঘরের বারান্দায় শুইয়ে রেখে বাড়ির বাইরের কাজে যান। এ সময় বেদেনা খাতুন ও তাঁর তিন সহযোগী কর্ণকে অপহরণ করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যান। এই ঘটনায় শিশুর পিতা ছমির আলী বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আইনের দ:বি: ৭ ধারায় অভিযোগ এনে বেদেনা খাতুনসহ ৪জনের নামোল্লেখসহ দৌলতপুর থানায় মামলা করেন। মামলাটি তদন্ত শেষে ২০১৮ সালের ৩০ নভেম্বর আদালতে চার্জশীট দাখিল করেন পুলিশ।

কুষ্টিয়া নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ কৌশুলী আব্দুল হালিম সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, দীর্ঘ সাক্ষ্য–শুনানি শেষে আসামি বেদেনা খতুনের বিরুদ্ধে অভিযোগ সন্দেহাতীত প্রমাণিত হওয়ায় তাঁকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। একই মামলার অন্য তিন আসামি ঠেকারী খাতুন, চাঁদ আলী ও আবদুর রশিদ নির্দোষ প্রমাণিত হওয়ায় তাঁদের বেকসুর খালাস দিয়েছেন আদালত।

এই বিভাগের আরো সংবাদ