নিয়ম রক্ষার ম্যাচে সুবিধা করতে পারেনি রংপুর
মঙ্গলবার, ২৮শে জানুয়ারি, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

নিয়ম রক্ষার ম্যাচে সুবিধা করতে পারেনি রংপুর

বঙ্গবন্ধু বিপিএল থেকে আগেই ছিটকে পড়েছে রংপুর রেঞ্জার্স। ১১ ম্যাচে মাত্র ৪ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের ছয় নম্বরে আছে শেন ওয়াটসনের নেতৃত্বাধীন দলটি। ঢাকা প্লাটুনের বিপক্ষে আজকের ম্যাচটি তাদের জন্য অনেকটা নিয়ম রক্ষার বলেই বিবেচিত হচ্ছে।

শেষটা জয় দিয়ে রাঙিয়ে রাখার উদ্দেশ্যে এই ম্যাচে খেলতে নেমে ঢাকার দারুণ বোলিংয়ের সামনে সুবিধা করতে পারেননি রংপুরের ব্যাটসম্যানরা। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেটে মাত্র ১৪৮ রান সংগ্রহ করে তারা।

দলের পক্ষে ৩২ বলে ৪৬ রানের ইনিংস খেলেন ইংলিশ রিক্রুট লুইস গ্রেগরি। যেখানে ২টি ছক্কা এবং ৫টি চার মারেন তিনি। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩৫ রান আসে মোহাম্মদ আল-আমিনের ব্যাট থেকে। ঢাকার হয়ে মাত্র ২২ রান খরচায় ৩ উইকেট নেন শ্রীলঙ্কান অলরাউন্ডার থিসারা পেরেরা। এছাড়া সাদাব খান ২টি উইকেট পান। আর একটি করে উইকেট শিকার করেন মাশরাফি বিন মুর্তজা এবং মেহেদি হাসান।

মিরপুর শের-ই বাংলা স্টেডিয়ামে ম্যাচের শুরুতে টসে জিতে রংপুরকে ফিল্ডিংয়ে পাঠান ঢাকা প্লাটুনের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। এরপর ব্যাট করতে নেমে স্পিনার মেহেদি হাসানের করা প্রথম ওভার থেকে এক ছক্কা এবং এক চারে ১০ রান নেন রংপুরের অধিনায়ক শেন ওয়াটসন। কিন্তু ঢাকার অধিনায়ক মাশরাফির করা পরের ওভারেই সাজঘরে ফেরেন ওয়াটসন।

আউট সাইড অফ স্টাম্পে করা মাশরাফির তিন নম্বর বলটি ড্রাইভ করতে দিয়ে ব্যাটের কানায় লাগে ওয়াটসনের। সহজ ক্যাচ ধরে বিধ্বংসী এই ব্যাটসম্যানকে সাজঘরে ফেরত পাঠান এনামুল হক বিজয়। মাত্র ১০ রান করে বিদায় নেন ওয়াটসন। ওয়াটসন ফেরার পর দ্রুত বিদায় নিতে হয় দক্ষিণ আফ্রিকার অলরাউন্ডার ক্যামেরন ডেলপোর্টকেও। দলীয় ২৮ রানের মাথায় মেহেদি হাসানের বলে এনামুল হক বিজয়ের হাতে স্টাম্পিংয়ের শিকার হন তিনি। মাত্র ৬ রান করে আউট হন তিনি।

দলীয় ৫০ রানের মাথায় ওপেনার মোহাম্মদ নাঈমকে ফিরিয়ে নিজের প্রথম উইকেট তুলে নেন পাকিস্তানি রিক্রুট সাদাব খান। ২১ বলে ১৭ রান করে আসিফ আলীর হাতে ক্যাচ দেন নাঈম। পরবর্তীতে চার নম্বর উইকেটে আল-আমিনের সঙ্গে ৪৯ রানের জুটি গড়ে দলকে বিপদমুক্ত করেন গ্রেগরি। তবে দলীয় ৯৯ রানের মাথায় গ্রেগরিকে সাদাব খানের হাতে ক্যাচ বানিয়ে এই জুটি ভাঙেন পেরেরা।

পঞ্চম উইকেটে ৪১ রানের আরেকটি মাঝারী জুটি গড়েন জহুরুল ইসলাম এবং আল-আমিন। ইনিংসের ১৯তম ওভারে বোলিংয়ে এসে আল-আমিনকে আরিফুল হকের হাতে ক্যাচ বানিয়ে আউট করেন সাদাব। আল-আমিন ফেরার পর আর কোনো ব্যাটসম্যান সেভাবে রান করতে পারেনি।

অর্থসূচক/এএইচআর

এই বিভাগের আরো সংবাদ