বাণিজ্য মেলায় হিজড়াদের চাঁদাবাজি, সাংবাদিককে হেনস্তা
রবিবার, ২৬শে জানুয়ারি, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

বাণিজ্য মেলায় হিজড়াদের চাঁদাবাজি, সাংবাদিককে হেনস্তা

ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় বেড়েছে হিজড়াদের দৌরাত্ম্য। এদিকে তৃতীয় লিঙ্গ  অত্যাচারে অতিষ্ঠ বিভিন্ন প্যাভিলিয়নের মালিকরা। কোন কোন স্টল থেকে ১ হাজার থেকে ২ হাজার টাকা পর্যন্ত চাঁদাবাজি করে নিয়ে যাচ্ছে হিজড়ারা। এদিকে প্রশাসনের নাকের ডগায় বসে এভাবে চাঁদাবাজি করলেও নিশ্চুপ বাণিজ্য মেলার প্রশাসন।

বাণিজ্য মেলায় প্রকাশ্যে চাঁদাবাজি করছে হিজড়ারা

আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে বাণিজ্য মেলার বিভিন্ন স্টল ঘুরে দেখা যায়, প্রকাশ্যে বিভিন্ন প্যাভিলিয়নে গিয়ে চাঁদাবাজি করছে হিজড়ারা। এ সময় পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে তাদের হাতে হেনস্তার শিকার হয়েছেন দেশের প্রথম বিজনেস অনলাইন নিউজ পোর্টাল অর্থসূচকের প্রতিবেদক এম আর মাসফি। তৃতীয় লিঙ্গ সম্প্রদায়ের কয়েকজন তার মোবাইল ফোন কেড়ে নিয়ে মাটিতে আছড়ে মারেন এবং তাকে অপমান করেন।

বাণিজ্য মেলার নাবিস্কো বিস্কুট প্যাভিলিয়নের ম্যানেজার বলেন, হিজড়াদের অত্যাচারে আমরা অতিষ্ঠ। আমরা তাদেরকে কিছুই বলতে পারি না। তারা এসে ১ থেকে ২ হাজার টাকা চাঁদা চেয়ে বসে। গতকাল ১ হাজার টাকা দিয়ে বিদায় করেছি। তবে মেলার শেষ সময়ে তারা আবারও আসবে বলে হুমকি দিয়ে গেছে।

বাণিজ্য মেলায় কাশ্মীরি আচারের স্টলে গিয়ে দেখা যায়, প্রকাশ্যে চাঁদাবাজি করছে হিজড়ারা। তারা স্টলটিতে ১ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে। পরে ৩০০ টাকা দিলেও মেলার মাঝামাঝি সময়ে আবার আসবে বলেছে তারা।

এদিকে তানভীর মেটালের ম্যানেজার জানান, একেক দিন একেক দল আসে। গতকাল হিজড়াদের একদল এসে ১ হাজার টাকা নিয়ে গেছে। আজ আরেক দল। আমরা যেন তাদের কাছে অসহায়।

বনফুল প্যাভিলিয়নের ম্যানেজার জানান, তাদের দুই স্টল থেকে ২ হাজার ৫০০ টাকা নিয়ে গেছে। হিজড়ারা যখন আসে তখন বেচাকেনা প্রায় বন্ধ হয়ে যায়। তারা অনেককে ক্রেতার সাথেও খারাপ আচরণ করে।

এ ব্যাপারে বাণিজ্য মেলায় পুলিশের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর আহাদের কাছে অভিযোগ করা হলে তিনি জানান, আমরা তাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময় অভিযান চালাচ্ছি। তাদের কাছে আমরাও নির্বিকার হয়ে যাই। গতকাল আমরা তাদেরকে বাণিজ্য মেলা থেকে বের করে দিয়েছি। কিন্তু তারপরও তারা প্রবেশ করে। হিজড়ারা বিভিন্ন প্যাভিলিয়নে চাঁদাবাজি করলেও কেউ তাদের বিরুদ্ধে লিখিত কোন অভিযোগ দেয় না বলেও দাবি করেন তিনি।

বিষয়টি নিয়ে বাণিজ্য মেলার সদস্য সচিব ও রফতানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) উপ-পরিচালক (ফাইন্যান্স) মো. আবদুর রউফ বলেন, আমরা হিজড়াদের বিষয়টি দেখছি। হিজড়ারা যাতে বাণিজ্য মেলায় প্রবেশ করতে না পারে সেটার জন্য আমরা পুলিশের সাথে বসবো।

অর্থসূচক/এএইচআর

এই বিভাগের আরো সংবাদ