'মন্ত্রী-এমপিরা নির্বাচনী কার্যক্রমে অংশ নিতে পারবেন না'
মঙ্গলবার, ৭ই জুলাই, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

‘মন্ত্রী-এমপিরা নির্বাচনী কার্যক্রমে অংশ নিতে পারবেন না’

শুধুমাত্র নির্বাচনী প্রচারণা নয়, নির্বাচনের কোন কার্যক্রমে মন্ত্রী-এমপিরা অংশ নিতে পারবেন না বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার।

তিনি বলেন, অতি গুরুত্বপূর্ণের সংজ্ঞায় যেসব বিষয় তার মধ্যে মন্ত্রী, এমপিরা পড়েন। আইনত তারা নির্বাচনী প্রচারকার্যে অংশ নিতে পারবেন না। শুধু প্রচারকাজ নয়, নির্বাচনী কোনো কার্যক্রমে তারা অংশ নিতে পারবেন না। তবে তারা নিজ নিজ কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিতে পারবেন। ভোট দেয়ার ক্ষেত্রে কোনো বিধিনিষেধ নেই।

ফাইল ছবি

ঢাকার দুই সিটির নির্বাচন নিয়ে আজ বুধবার (৮ জানুয়ারি) রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

মাহবুব তালুকদার বলেন, দুটি বিষয়ে স্পষ্ট ও প্রয়োজনীয় আলোচনা হয়েছে। এর মধ্যে একটি অতি গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের নির্বাচনী প্রচারণায় অংশগ্রহণ। এ বিষয়ে আমরা বলেছি বিদ্যমান আইনে যা আছে তার বাইরে যাওয়া সম্ভব নয়। অতি গুরুত্বপূর্ণ কেউ নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নিতে পারবেন না।

উত্তর ও দক্ষিণে দুইজন সংসদ সদস্য আওয়ামী লীগের নির্বাচনী দায়িত্বে আছেন তারা কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারবেন কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, এই মুহূর্তে এ বিষয়ে আমি কিছু বলব না। আইনের নির্দেশের বাইরে আমরা যাবে না। আইনের বাইরে যাওয়ার আমাদের এখতিয়ার নেই। ভবিষ্যতে যদি আইন পরিবর্তন হয় সেক্ষেত্রে তো আমরা কিছু বলতে পারব না।

‘সব রাজনৈতিক দলের কাছেই আমাদের সহায়তা দরকার। আমি বলেছি, একটি বিশেষ কারণে এই নির্বাচন আমাদের কাছে চ্যালেঞ্জ। বিশেষ কারণটা হচ্ছে ভোটার উপস্থিতি। ইভিএমে আমরা উত্তর ও দক্ষিণ সিটির ভোট করতে যাচ্ছি। এই নির্বাচনে যদি ভোটার উপস্থিতি কম হলে তা আমাদের জন্য খুব একটা ভালো হবে না। ব্যালট পেপারের নির্বাচনে যেমন উপস্থিতি হয়েছে ইভিএমেও যাতে এমন ভোটার উপস্থিতি হয়, সেই চেষ্টাই করব। ভোটার উপস্থিতির বিষয়ে সব দলের সহায়তা আমাদের দরকার।’

তবে লিখিতভাবে আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ কোনও দাবি জানাননি বলে বলেন এই নির্বাচন কমিশনার।

নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদারের নেতৃত্বে বৈঠকে অন্যদের মধ্যে নির্বাচন কমিশনার কবিতা খানম, রফিকুল ইসলাম, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শাহাদাত হোসেন চৌধুরী এবং দুই সিটি কর্পোরেশনের রিটার্নিং কর্মকর্তা আব্দুল বাতেন ও আবুল কাশেম উপস্থিত ছিলেন। তবে নির্বাচনী কাজে চট্টগ্রাম থাকায় প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা বৈঠকে উপস্থিত থাকতে পারেননি।

অপরদিকে আওয়ামী লীগের নির্বাচনী পরিচালনা কমিটির কো-চেয়ারম্যান এইচটি ইমামের নেতৃত্বে প্রধানমন্ত্রীর অর্থ উপদেষ্টা ড. মশিউর রহমান, আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক সেলিম মাহমুদ, নির্বাচনী পরিচালনা কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট দেবুল কুমার প্রমুখ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

অর্থসূচক/কেএসআর

এই বিভাগের আরো সংবাদ