সোলাইমানি হত্যা: পরমাণু চুক্তি না মানার ঘোষণা ইরানের
রবিবার, ১৮ই জানুয়ারি, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

সোলাইমানি হত্যা: পরমাণু চুক্তি না মানার ঘোষণা ইরানের

২০১৫ সালে স্বাক্ষরিত পরমাণু চুক্তি থেকে সরে আসার ঘোষণা দিয়েছে ইরান। দেশটির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে- ২০১৫ সালের পরমাণু চুক্তির মাধ্যমে তাদের ওপর যেসব নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছিল, তা আর মানা হবে না।

তেহরানে দেশটির মন্ত্রিসভার এক বৈঠকের পর এক বিবৃতির এ ঘোষণা দেয় ইরান। এ সিদ্ধান্তের আলোকে ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণের ধাপ এবং ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণের জন্য সেন্ট্রিফিউজসহ যে সব উপায়-উপকরণ লাগে সে ব্যাপারেও ইরান কোন সীমাবদ্ধতা মানে না।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, পরমাণু সমঝোতার ধারা বাস্তবায়ন স্থগিত করার ক্ষেত্রে ইরান পঞ্চম ধাপের পদক্ষেপ নিল এবং পরমাণু সমঝোতার আওতায় এসব কর্মকাণ্ড পরিচালনার ক্ষেত্রে ইরানের কোনো সীমাবদ্ধতা মানবে না। এই সিদ্ধান্তের আলোকে ইরান তার পরমাণু কর্মসূচি অব্যাহত রাখবে ‘টেকনিক্যাল প্রয়োজনের নিরীখে’। একইসঙ্গে ইরান আন্তর্জাতিক আণবিক শক্তি সংস্থা বা আইএইএ’র সঙ্গে সহযোগিতা অতীতের মতোই অব্যাহত রাখবে

বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, ইরানের ওপর থেকে যদি নিষেধাজ্ঞা সম্পূর্ণভাবে প্রত্যাহার করা হয় এবং পরমাণু সমঝোতা যদি পরিপূর্ণভাবে বাস্তবায়ন করা হয় তাহলে ইরান তার এইসব সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করবে।

ইরানের জেনারেল কাসেম সোলাইমানিকে যুক্তরাষ্ট্র বাগদাদে হত্যা করার পর ওই অঞ্চলে এখন তীব্র উত্তেজনা বিরাজ করছে। এদিকে রবিবার সন্ধ্যায় বাগদাদে যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাস এলাকা লক্ষ্য করে হামলার খবর পাওয়া গেছে। অন্তত চারটি রকেট দূতাবাস লক্ষ্য করে ছোড়া হয়েছে। যদিও হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

২০১৫ সালের চুক্তির আলোকে ইরান স্পর্শকাতর পরমাণু কার্যক্রম সীমিত করতে সম্মত হয়েছিলো এবং আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষকদের পরিদর্শনের অনুমতি দিয়েছিলো অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের বিনিময়ে। কিন্তু প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ২০১৮ সালে এ চুক্তি থেকে সরে দাঁড়ান এবং বলেন যে, তিনি পরমাণু কর্মসূচি কমিয়ে আনা ও ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি স্থগিত করতে ইরানকে একটি নতুন চুক্তিতে বাধ্য করবেন।

ইরান তার এ বক্তব্য প্রত্যাখ্যান করে এবং ধীরে ধীরে পরমাণু চুক্তি বিষয়ে দেয়া প্রতিশ্রুতি থেকে সরে আসতে থাকে। এবং কাসেম সোলাইমানি হত্যাকাণ্ডের আগেই পরমাণু চুক্তি বিষয়ে সর্বশেষ অবস্থান জানাবে বলে আশা করা হচ্ছিল।

অর্থসূচক/এএইচআর

এই বিভাগের আরো সংবাদ