বড়দিনের প্রস্তুতি
শনিবার, ১৫ই আগস্ট, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

বড়দিনের প্রস্তুতি

খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় উৎসব ‘ক্রিসমাস’। দিনটিকে বাংলায় ‘বড়দিন’ হিসেবে অভিহিত করা হয়। দিবসটি উদযাপনে বরাবরের মতো এবারও উৎসবের রঙে সেজেছে রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেল। 

বিশ্ববাসীর মঙ্গল কামনা করে রাত থেকেই শুরু হচ্ছে বিশেষ প্রার্থনা। আলোকসজ্জা। লাল, নীল ও সবুজ এলইডি লাইটে ঝলমলে হয়ে উঠেছে গির্জা ও হোটেলগুলো।

গির্জা ছাড়াও বিভিন্ন তারকা হোটেলগুলোতে থাকবে বড়দিনের বিশেষ উপহার প্রদান, ধর্মীয় সংগীত, ভোজসহ নানা আয়োজন। সেগুলো সবার জন্য উন্মুক্ত।

ছবিটি রাজধানীর কাকরাইল চার্চ থেকে তোলা।

উৎসব পালনের জন্য গির্জাগুলোর পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা থেকে শুরু করে সাত দিনব্যাপী সব ধরনের আনুষ্ঠানিকতা ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে। সারা দেশের গির্জাগুলো এখন প্রস্তুত বিশেষ প্রার্থনার জন্য। ঢাকার বেশ কয়েকটি গির্জা ঘুরে দেখা গেছে, আলোকসজ্জা। লাল, নীল ও সবুজ এলইডি লাইটে ঝলমলে হয়ে উঠেছে গির্জাগুলো। এই অনুষ্ঠান শুধু খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের জন্যই উন্মুক্ত থাকবে। বাড়ানো হয়েছে নিরাপত্তাও।

 

উল্লেখ্য, যিশু খ্রিস্টের জন্মোৎসবকে কেন্দ্র করে সারাবিশ্বে এই উৎসব পালিত হয়ে থাকে। এই দিনটিই যিশুর প্রকৃত জন্মদিন কিনা তা জানা না থাকলেও খ্রিস্টানদের ধর্মীয় বিশ্বাস অনুসারে মনে করা হয়— ডিসেম্বরের কোনও এক দিন তিনি (যিশু খ্রিস্ট) জন্মগ্রহণ করেন। তাই সম্ভাব্য হিসেবে ২৫ ডিসেম্বরকে যিশুর জন্মতারিখ ধরে এই উৎসব পালন করা হয়। বিশ্বের অধিকাংশ দেশেই ২৫ ডিসেম্বর বড় দিন হিসেবে পালিত হলেও রাশিয়া, জর্জিয়া, মিশর, আর্মেনিয়া, ইউক্রেন ও সার্বিয়ার মতো কয়েকটি ইস্টার্ন ন্যাশনাল চার্চ ৭ জানুয়ারি বড়দিন পালন করে থাকে।

ছবি: মেহেদী হাসান রানা

অর্থসূচক/এএইচআর

এই বিভাগের আরো সংবাদ