বিএনপির আইনজীবীরা অন্যায় করেনি: ফখরুল
মঙ্গলবার, ১১ই আগস্ট, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

বিএনপির আইনজীবীরা অন্যায় করেনি: ফখরুল

সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে খালেদা জিয়ার জামিন শুনানি নিয়ে বৃহস্পতিবারের (৫ ডিসেম্বর) ঘটনায় বিএনপিপন্থী আইনজীবীরা যা করেছেন তা অন্যায় নয় বলে দাবি করেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

ফাইল ছবি

তিনি বলেন, আপিল বিভাগে আমাদের নেত্রীর জামিন শুনানির পর মন্ত্রিসভার সদস্যরা এমন বক্তব্য দিচ্ছেন যেন সেদিন যারা দেশনেত্রীর মুক্তির জন্যে দাঁড়িয়েছিলেন তারা মহাঅপরাধ করে ফেলেছেন। তারা এসব কথা বলার আগে নিজেদের পেছন দিকে একবার দেখার চেষ্টা করেছেন কি? আমাদের আইনজীবীরা তো একটাও খারাপ কাজ করেনি। তারা নিজেদের জায়গায় বসে দাবির কথা বলেছেন।

আজ শনিবার দুপুরে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক যৌথসভা শেষে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ভেঙে খান খান করেছে মন্তব্য করে মির্জা ফখরুল বলেন, আমরা রণাঙ্গনে মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে বিজয় দিবস অর্জন করেছিলাম। সেই দিনটি যথাযথভাবে পালন করছি শুরু থেকেই। কিন্তু আজকে একটি দল নিজেদের মুক্তিযুদ্ধের মালিকানা মনে করে। স্বাধীনতার ৪৯ বছর পরও আমরা সত্যিকারের স্বাধীন বাংলাদেশ পাইনি। যারা নিজেদের মুক্তিযুদ্ধে নেতৃত্বদানকারী দাবি করে তাদের দ্বারা দেশের গণতন্ত্র বার বার নিহত হয়েছে।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ অতীতে বাকশাল কায়েমের মাধ্যমে দেশের চারটি বাদে সব গণমাধ্যম বন্ধ করে দিয়েছিল। আজকেও তারা ভিন্ন লেবাসে বাকশাল কায়েম করেছে। আজকে গণতন্ত্রের নেত্রী যিনি দীর্ঘ ৯ বছর সংগ্রাম করেছেন। আজও সংগ্রাম করছেন, সেই নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় কারাগারে বন্দি রেখেছে সরকার।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ক্ষমতাসীনরা সংবিধান সংশোধন করে একদলীয় শাসন ব্যবস্থা কায়েম করতে সব আয়োজন চূড়ান্ত করেছে। শুধু দল ও ব্যক্তিকে ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য স্বাধীনতার স্বপ্ন ভেঙে খান খান করে দিয়েছে। মানুষের ভোটাধিকার হরণ করে বাকস্বাধীনতা কেড়ে নিয়েছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, ক্ষমতাসীনরা ভয়ের পরিস্থিতি তৈরি করে দেশ শাসন করছে। নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে আবারও আগের অবস্থা ফিরে এসেছে। পুলিশ নেতাকর্মীদের হয়রানি করছে।

আপিল বিভাগে আইনজীবীদের হট্টগোল প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ২০০৬ সালের নভেম্বরে আদালতে আওয়ামী লীগের আইনজীবীরা আন্দোলন করে ভাঙচুর করেছেন। আমাদের নেতা শাহজাহান ওমরের গাড়ি পুড়িয়ে দিয়েছিল। প্রধান বিচারপতির এজলাস লন্ডভন্ড হয়েছিল। আদালত শুনানি স্থগিত করেছিলেন। আজকে এসব ইতিহাস মিডিয়া লিখতে ও বলতে পারে না। আসলে দেশে আইনের শাসন নেই।

ফখরুল বলেন, আজকে সরকার পুরোপুরি ব্যর্থ। দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি মানুষের নাভিশ্বাস উঠেছে। প্রত্যেকটি সূচক কমেছে। গার্মেন্ট শিল্প ধ্বংস। রফতানি কমেছে। দেশকে খালি কলসির দিকে নিয়ে গেছে সরকার। এখন দুর্বৃত্তদের কবলে দেশ। রাষ্ট্রীয় সম্পদ লুট করে দেশকে ফোকলা করে দিয়েছে।

তিনি বলেন, কানাডায় একটি পাড়া তৈরি হয়েছে যার নাম ‘বেগম পাড়া’। আসলে তারা জানে যে, তাদের পতন অনিবার্য। এ জন্যই টাকা পাচার করেছে। তবে মানুষ কিন্তু জেগে উঠেছে। আন্দোলন সংগ্রামের মধ্য দিয়েই তারা বিজয় অর্জন করবে। বিজয়ের মাস উদযাপন আমাদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এ মাসের চেতনায় দানব সরকারকে হটিয়ে দেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব ও পতাকা রক্ষা করতে হবে।

অর্থসূচক/কেএসআর

এই বিভাগের আরো সংবাদ