দুর্নীতি করে সম্পদ অর্জন করা যায়, সম্মান পাওয়া যায় না: প্রধানমন্ত্রী

দুর্নীতি করে হয়তো সম্পদ অর্জন করা যায়, কিন্তু মানুষের সম্মান পাওয়া যায় না বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শনিবার দুপুরে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে যুবলীগের সপ্তম জাতীয় কাউন্সিলে বক্তৃতাকালে তিনি একথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, মানুষকে কতটুকু দিতে পারলাম সেই চিন্তা করতে হবে। দুর্নীতি করে হয়তো সম্পদ অর্জন করা যায়, কিন্তু মানুষের সম্মান পাওয়া যায় না, এটাই হচ্ছে বাস্তবতা।

যুব সমাজকে তিনি বলেন, মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও দুর্নীতি থেকে দূরে থাকতে হবে যুব সমাজকে। এবং দেশের উন্নয়নে যুব সমাজের মেধা ও শক্তিকে কাজে লাগাতে হবে।

তিনি আরও বলেন, ‘যুবলীগ এই দেশে রাজনৈতিকভাবে অনেক অবদান রেখেছে। প্রত্যেকটা আন্দোলনে যুবলীগ ভূমিকা রেখেছে। মুক্তিযুদ্ধে এই যুবকরাই তো বুকের রক্ত ঢেলে দিয়ে দেশ স্বাধীন করেছে। তবে যুবকরা যেন দেশের কল্যাণে কাজ করে, সেদিকে লক্ষ রাখতে হবে।’

যুবলীগ নেতাকর্মীদের উদ্দেশ করে তিনি বলেন, চাঁদার হিসাব না করে জনকল্যাণের কথা চিন্তা করতে হবে। এ সময় তিনি বদনাম দূরে সরিয়ে আদর্শ ও সম্মান নিয়ে চলতে যুবলীগ নেতাকর্মীদের নির্দেশ দেন।

সরকারের গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশ আজ এগিয়ে যাচ্ছে। অনেক ক্ষেত্র বাংলাদেশ আজ বিশ্বে রোল মডেল। এটা আমাদের কথা নয়, বিশ্বই এই স্বীকৃতি দিচ্ছে।

এর আগে শনিবার সকাল সোয়া ১১টার দিকে যুবলীগের সপ্তম জাতীয় কংগ্রেসের উদ্বোধন করেছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

যুবলীগের এই কংগ্রেসেই ঘোষণা করা হবে সংগঠনের নতুন চেয়ারম্যান ও সাধারণ সম্পাদকের নাম।

যুবলীগের নতুন নেতৃত্ব নিয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরসহ দলের নীতিনির্ধারক নেতারা আগেই স্পষ্ট করে বলেছেন, দুর্নীতিবাজ ও বিতর্কিতদের আর ঠাঁই হবে না যুবলীগে। সৎ, যোগ্য, ত্যাগী, পরীক্ষিত ও জনপ্রিয়রাই আসবেন এই সংগঠনের নেতৃত্বে। বিশেষ করে চেয়ারম্যান ও সাধারণ সম্পাদক পদে নতুন মুখ খুঁজে নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শনিবার কংগ্রেসের দ্বিতীয় পর্বে আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের নাম ঘোষণা করা হবে। আর আলোচিত নেতারা নতুন নেতৃত্বে এলে যুবলীগের চলমান কলঙ্ক কিছুটা হলেও মুছবে বলে অনেকেই মনে করছেন।

অর্থসূচক/এমএস