আ. লীগ স্বৈরাচার নয়, স্বৈরাচারের বাবা: ফখরুল
সোমবার, ১৫ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

আ. লীগ স্বৈরাচার নয়, স্বৈরাচারের বাবা: ফখরুল

বর্তমানে দেশে একজন, এক ব্যক্তির শাসন চলছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি বলেন, অনেকেই বলেন– এটি স্বৈরাচার সরকার। এরা স্বৈরাচার নয়, স্বৈরাচারের বাবা, ফ্যাসিবাদী। স্বৈরাচার হলে তাদের ন্যূনতম একটা কিছু থাকে। আইয়ুব খান ছিল স্বৈরাচার, ডিক্টেটর— তখনও এই অবস্থা ছিল না। এটি তো ফ্যাসিবাদ।

আজ শুক্রবার দুপুরে সুপ্রিমকোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশন মিলনায়তনে এক আলোচনাসভা ও দোয়া অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ৫৫তম জন্মদিন উপলক্ষে স্বেচ্ছাসেবক দল এ আলোচনা সভার আয়োজন করে।

মির্জা ফখরুল বলেন, সেলিম আল দীনের লেখা মুনতাসীর ফ্যান্টাসি নাটকে দেখেছি প্রধান চরিত্র সবকিছু খেয়ে ফেলে। তার পেটে প্রচণ্ড ক্ষুধা, সেজন্য সে চেয়ার-টেবিল, কাগজপত্র সবকিছু খেয়ে ফেলে। এই সরকারও মুনতাসিরর ফ্যান্টাসির মধ্যে পড়েছে। তারা সবকিছুই খেয়ে ফেলেছ।

এ সময় নেতাকর্মীদের উদ্দেশে মির্জা ফখরুল বলেন, হতাশ হওয়ার কিছু নেই। নেলসন ম্যান্ডেলা ২৭ বছর জেলে ছিলেন। আর সু চি ১০ বছর গৃহবন্দি ছিলেন। শেষ পর্যন্ত গণতন্ত্রের জয় হয়েছে। আমাদের নেত্রী খালেদা জিয়া কারাগারে। নিজের জন্য নয়, তিনি জনগণ ও গণতন্ত্রের জন্য কারাগারে।

বিএনপির এই নেতা বলেন, যখন আমাদের মধ্যে হতাশা, ভয়ভীতি কাজ করছে তখন সুদূর থেকে তারেক রহমান লালমনিরহাটে ফোন করে বলছেন, ‘কেমন আছেন, ভালো আছেন তো। সাহস হারাবেন না, আমরা সবাই আছি।’ আওয়ামী লীগের লোকজন মনে করেন, শুধু তারেক রহমান স্কাইপে আমাদের নেতাদের সঙ্গে কথা বলেন। তিনি প্রায় আমাদের তৃণমূলের নেতাদের সঙ্গে কথা বলেন। সেই জন্য বলছি, এত হতাশা ও অন্ধকারে মধ্যে আমার আশার আলো দেখতে পাই তারেক রহমানের নেতৃত্বের মধ্যে। এই নেতৃত্বে আমাদেরকে মুক্তি দেবে।

সরকার সম্পর্কে কিছু বলার আছে কিনা প্রশ্ন রেখে মির্জা ফখরুল বলেন, আমরা মনে হয় না কিছু বলার আছে, এখন প্রতিটি মানুষ চায় এই সরকার যাক। এই মুহূর্তে গেলে আরও ভালো। মানুষ আর পারছে না। আগে তো তারা বিএনপিকে পিটিয়েছে, এখন সাধারণত মানুষের ওপর শুরু করেছে। পেঁয়াজ, লবণ সব কিছু দিয়ে।

স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবুর সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শওকত মাহমুদ, যুগ্ম মহাসচিব হাবিব উন নবী খান সোহেল, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদের ভূঁইয়া জুয়েল প্রমুখ।

অর্থসূচক/কেএসআর

এই বিভাগের আরো সংবাদ