ArthoSuchak
সোমবার, ৬ই এপ্রিল, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

সিলেট হঠাৎ লবণ উধাও, গুজব নিয়ন্ত্রণে প্রশাসন

‘লবণের দাম বেড়েছে’ এমন গুজব ছড়িয়ে পড়ায় পর সোমবার সন্ধ্যার পর সিলেটের প্রায় সব খুচরা দোকানের লবণ বিক্রি হয়ে গেছে। এ সুযোগে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী লবণ দু-তিন গুণ বেশি দামে বিক্রি শুরু করেন। পরে রাতেই গোয়েন্দা পুলিশ, র‌্যাব ও জেলা প্রশাসন এ গুজব নিয়ন্ত্রণ করে।

আজ মঙ্গলবার সকালে নগরের বিভিন্ন দোকান দেখা গেছে লবণ শেষ। এতে সিলেটের খুচরা বাজারে লবণের সংকট দেখা দিচ্ছে।

সোমবার সন্ধ্যা থেকে লবণের দাম বেড়ে যাচ্ছে গুজব ছড়িয়ে পড়ে সিলেট বিভাগজুড়ে। এমন খবরে ক্রেতারা হুমড়ি খেয়ে পড়েন সিলেট নগরের খুচরা ও পাইকারি দোকানগুলোতে। বাড়তি চাপে নিমিষেই ফুরিয়ে যায় নগরের বিভিন্ন দোকানের লবণের মজুত। আবার অনেক ব্যবসায়ী বেশি দামে বিক্রির জন্য লবণ মজুত করেন। এ নিয়ে সিলেটে লবণ নিয়ে ঘটে লঙ্কাকাণ্ড।

প্রশাসন বলছে, লবণের মূল্যবৃদ্ধির খবর পুরোটাই গুজব। কেউ উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে এ গুজব ছড়াতে পারে। ব্যবসায়ীরাও জানিয়েছেন, লবণের চাহিদামাফিক সরবরাহ রয়েছে। শিগগিরই দাম বাড়ার শঙ্কা নেই। তবে ব্যবসায়ীরা এমনটি দাবি করলেও সোমবার রাতেই অনেক দোকানে বাড়তি দামে লবণ বিক্রির অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সোমবার রাত ১০টার দিকে সিলেট নগরের কালীঘাট এলাকা থেকে লবণ ভর্তি দুটি ভ্যান জব্দ করে জাতীয় গোয়েন্দা এনএসআই’র প্রতিনিধি দল। বিভিন্ন কোম্পানির প্রায় ৫০ বস্তা লবণ জব্দ করা হয়। এ সময় দুই ভ্যান চালককে ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড ও দুই ব্যবসায়ীকে ৪৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। ব্যবসায়ীরা প্রতি বস্তা ২১৬ টাকা বেশি দামে লবণ বিক্রি করেছেন বলে জানান সদর উপজেলার এসিল্যান্ড সুমন্ত ব্যানার্জি।

অতিরিক্ত দামে লবণ বিক্রির দায়ে সোমবার (১৮ নভেম্বর) বিকেলে বড়লেখায় ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালিয়ে উপজেলার সাতটি দোকানের মালিককে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

গুজবকে কেন্দ্র করে এই হুলুস্থুলের প্রেক্ষিতে সোমবার সন্ধ্যায় জনগণকে বিভ্রান্ত না হওয়ার আহ্বান জানান সিলেট জেলার পুলিশ সুপার ফরিদ উদ্দিন। নিজের ফেসবুকে পুলিশ সুপার লেখেন, ‘প্রিয় সিলেটবাসী, বাজারে নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রীর পর্যাপ্ত সরবরাহ রয়েছে। কোনো কিছুর দাম বাড়তে পারে এমন গুজবে কান না দেয়ার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ জানাচ্ছি।’

সিলেট নগরের বাসিন্দা আলিম আল রাজি নামের এক চিকিৎসক সোমবার রাতে ফেসবুকে লেখেন, সিলেটে আরও একটি নিত্যব্যবহার্য দ্রব্যের দাম বেড়ে গেছে! ‘দাম বেড়েছে’ – যারা এই গুজবটা ছড়িয়েছে তারা সফল। এখন সত্যি সত্যি অনেক জায়গায় আগের চেয়ে চারগুণ বেশি দামে এই দ্রব্যটি বিক্রি হচ্ছে। কিছু জায়গায় অবস্থা আরও খারাপ।

অর্থসূচক/কেএসআর

এই বিভাগের আরো সংবাদ