ArthoSuchak
সোমবার, ৬ই এপ্রিল, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

শীঘ্রই আমেকিায় রপ্তানি করবে এপেক্স

পুঁজিবাজারের তালিকাভুক্ত কোম্পানি এপেক্স ফুটওয়্যার খুব শীঘ্রই আমেরিকায় রপ্তানি করবে বলে জানান কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েদ নাসিম মনজুর।

আজ কোম্পানির ২৯তম বার্ষিক সাধারণ সভায় (এজিএম) তিনি এ কথা জানান।

নাসিম জানান, আমরা মূলত ইউরোপ দেশ ভিত্তিক রপ্তানি করি। ইউরোপ দেশেই আমাদের রপ্তানি বেশি। কিন্তু গত অর্থবছরে আমাদের রপ্তানি আয় অনেক কমে গেছে। এর বড় একটি কারণ হচ্ছে বর্তমানে ইউরোপে অর্থনৈতিক মন্দা চলছে। সেখানে তারা পোশাক এবং জুতা এরকম সৌখিন বিষয়ে খরচ কমিয়ে দিয়েছে। এতে করে আমাদের রপ্তানি আয় কমে গেছে। তারপরও আয় কিছুটা বাড়ানো যেত সস্তা মূল্যের পণ্য রপ্তানি করে। এতে পণ্যের মানের উপর আস্থা কমে যেত। যেটা কোম্পানির জন্য ভালো ছিল না। আর এপেক্স ভালো মানের পণ্য তৈরিতে আপোস করে না।

তিনি আরও বলেন, এজন্য আমরা নতুন বিনিয়োগ করছি এবং উদ্যোগ নিয়েছি। এখন থেকে শুধু ইউরোপ ভিত্তিক দেশেই রপ্তানি করবো না। আমেরিকার দেশগুলোতেও আমাদের রপ্তানি বাড়াতে হবে। তবে সেক্ষেত্রে সময় লাগবে। কারণ আমেরিকা সব সময় চায়না, জার্মানী ও জাপান ইত্যাদি দেশ থেকে রপ্তানি করে আসছে। সেখানে বাংলাদেশ থেকে রপ্তানির বিষয়টা তো সময় লাগবেই।

তিনি আরও জানান, তবে আমরা রপ্তানির জন্য সব প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছি। আশা করছি আগামী ছয় মাসের মধ্যেই রপ্তানি করা সম্ভব হবে। এজন্য অ্যাকর্ড অ্যালায়েন্সেএ পেছনে প্রতি বছর অনেক টাকা খরচ করে যাচ্ছি। এরপর মান সম্পন্ন চামড়ার ক্ষেত্রে এপেক্স ট্যানারিতেও বিনিয়োগ করে যাচ্ছি। যাতে করে আমরা আমেরিকার দেশগুলোতেও রপ্তানি করতে পারি। আমাদের ব্যবসার মূল লক্ষ্য হচ্ছে দেশে ৫০ ভাগ বিক্রির পাশাপাশি বিদেশে ৫০ ভাগ রপ্তানির মাধ্যমে শতভাগ ব্যবসা করা।

এজিএম এ শেয়ারহোল্ডারবৃন্দ লভ্যাংশ অনুমোদনসহ মোট ছয়টি এজেন্ডা পাশ করেন।  গত ২০১৮-১৯ অর্থবছরে কোম্পানিটি সকল শেয়ারহোল্ডারদের জন্য ৫৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছিল।

কোম্পানীর চেয়ারম্যান সৈয়দ মঞ্জুর এলাহীর সভাপতিত্বে আরও উপস্থিত ছিলেন স্বতন্ত্র পরিচাক ড. ফরাস উদ্দিন পারভিন আহমেদ। এছাড়া আর উপস্থিত ছিলেন কোম্পানির ইউনিট-১ ও ইউনিট-২ এর সিইও, সিএফও এবং কোম্পানির সেক্রেটারিসহ কর্মকর্তা, কর্মচারী ও শেয়ারহোল্ডারবৃন্দ।

এই বিভাগের আরো সংবাদ