ধর্ষণের পর ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ায় গ্রেফতার ১২

পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলার সাহাপুর ইউনিয়নে এক কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের পর ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার অপরাধে ১২ জন যুবককে গ্রেফতার করেছে ঈশ্বরদী থানা পুলিশ।

রোববার (১০ নভেম্বর) বিকেল সাড়ে ৩টায় তাদের আদালতের মাধ্যমে পাবনা জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এরআগে, সকালে ঈশ্বরদী উপজেলার সাহাপুর ইউনিয়নে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়।

গ্রেফতার আসামিরা হলেন- ঈশ্বরদী সাহাপুর ইউনিয়নের মহাদেবপুর গ্রামের মানজুর রহমানের ছেলে মেহেদী হাসান (২২), রেজাউল মণ্ডলের ছেলে রাজিব মণ্ডল, আজিজুল ফরিরের ছেলে রাসেল (২০), দিয়াড় সাহাপুর গ্রামের মৃত আক্তার হোসেনের ছেলে রাব্বি হোসেন (২০), তরিকুল ইসলামের ছেলে শিহাব হোসেন (১৯), কেদু সাহ’র ছেলে শামিম হোসেন (২২), সোলাইমান হোসেনের ছেলে সৈকত হোসেন (২২), রাজ্জাক আহমেদের ছেলে রাজু আহমেদ (২০), সিদ্দিকুর রহমানের ছেলে শফিউল ইসলাম সালমান (২১), সাহাপুর-এর দেবেন মহলদারের ছেলে ইমন আলী (২১), আশরাফুল ইসলামের ছেলে আশিক (২১), ঈশ্বরদী পৌর এলাকার সাঁড়া গোপালপুরের    মাহাবুব আহমেদের ছেলে মাহফুজ আহমেদ (২০)।

পাবনার ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বাহাউদ্দীন ফারুকী জানান, অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে সদ্য বিবাহিত এক গৃহবধূকে ধর্ষণ করে ভিডিও ধারণ করা হয়। এরপর ভিডিওটি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ায় ওই গৃহবধূর সংসার ভেঙে যায়। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূর বাবা ঈশ্বরদী থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

গ্রেফতার যুবকদের তিনটি আইনের ধারা সংযোজন করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন,পর্নোগ্রাফি ও ডিজিটাল আইনে মামলা নথিভুক্ত করে তাদের পাবনা জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

অর্থসূচক/এমএস