আরামবাগ-দিলকুশা ক্লাবে জুয়ার সরঞ্জাম, পালিয়েছে সবাই

রাজধানীর বাণিজ্যিক এলাকাখ্যাত মতিঝিলের চারটি ক্লাবে অভিযান চালিয়েছে পুলিশ। অভিযানে ক্লাবগুলো থেকে ক্যাসিনো খেলার সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়েছে। এছাড়া ক্লাবগুলো থেকে নগদ টাকা, মাদক উদ্ধার করা হয়েছে।

ক্লাবগুলো হলো- আরামবাগ, দিলকুশা, মোহামেডান ও ভিক্টোরিয়া। রোববার বিকেল ৩টা ২০ মিনিটে এসব ক্লাবে অভিযান শুরু করেছে পুলিশ।

এদের মধ্যে দিলকুশা স্পোর্টিং ক্লাব ও আরামবাগ ক্রীড়া সংঘ পাশাপাশি অবস্থিত। এখানে অভিযান চালাচ্ছে মতিঝিল ও পল্টন থানা পুলিশ। অভিযানে এই দুটি ক্লাব থেকেই ক্যাসিনো ও জুয়ার বিপুল সরঞ্জাম জব্দ করা হয়েছে।

অভিযানে নেতৃত্ব দিচ্ছেন পুলিশের মতিঝিল বিভাগের এডিসি শিবলি নোমান। তিনি জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে একসঙ্গে চার ক্লাবে অভিযান চালানো হচ্ছে। তার নেতৃত্বে আরামবাগ ও দিলকুশা ক্লাবে অভিযান চলছে।

এডিসি শিবলি নোমান বলেন, বিকেল সাড়ে ৩টায় আরামবাগ ক্লাবে গিয়ে দেখা যায়, আগে থেকেই বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন করা। অন্ধকারে সবকিছু দেখা যাচ্ছিল না। তবে সেখানে ক্যাসিনো চলে সেটা বোঝা যাচ্ছিল।

তিনি বলেন, অভিযানের খবর শুনে সবাই পালিয়ে যায়। দিলকুশায়ও কাউকে পাওয়া যায়নি। এসব জুয়া-ক্যাসিনোতে যারা জড়িত তাদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ বিষয়ে মতিঝিল বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) আনোয়ার হোসেন জানান, চারটি ক্লাব থেকেই ক্যাসিনো খেলার সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়েছে। এখন এসব মালামাল সিজ করা হবে।

চারটি ক্লাবের মধ্যে শুধু ভিক্টোরিয়া ক্লাব থেকে এক লাখ টাকা ও একটি মদের বোতল উদ্ধার করা হয়েছে। অভিযান চলমান থাকবে বলেও জানান তিনি।

এক প্রশ্নের জবাবে আনোয়ার হোসেন জানান, এখনো কাউকে আটক করা হয়নি, তবে যেভাবে হোক আমরা ক্লাবে ক্লাবে প্রবেশ করে অভিযান চালিয়েছে।

অর্থসূচক/কেএসআর