৬ বছরে মধ্যে সর্বনিম্ম বেসরকারি ঋণ
বুধবার, ১৫ই জুলাই, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

৬ বছরে মধ্যে সর্বনিম্ম বেসরকারি ঋণ

নতুন অর্থবছরের প্রথম মাসেই লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে ব্যর্থ হয়েছে বেসরকারি খাত। অন্যদিকে ব্যাংক থেকে বেড়েই চলেছে সরকারি ঋণ। জুলাই (২০১৯) শেষে বেসরকারি খাতের ঋণ প্রবৃদ্ধি হয়েছে ১১ দশমিক ২৬ শতাংশ। যা মূদ্রানীতি ঘোষিত লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৩ দশমিক ৫৪ শতাংশ কম।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য বলছে, ধারাবাহিকভাবে বেসরকারি ঋণ বিতরণ কমেই চলেছে। গত মাসের (জুলাই) প্রবৃদ্ধি ছিল গত ছয় বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন।

বেসরকারি ঋণ বিতরণের টানাপোড়নের সময় ব্যাংক থেকে সরকারি ঋণ ক্রমেই বাড়ছে। তথ্য অনুযায়ী,  নতুন অর্থবছরের (২০১৯-২০) প্রথম তিন সপ্তাহে ১৪ হাজার ৭৯০ কোটি টাকা ব্যাংক খাত থেকে ঋণ নিয়েছে সরকার। বর্তমানে নগদ টাকার সংকটে রয়েছে অধিকাংশ ব্যাংক। এরই মধ্যে ব্যাংক থেকে সরকারি ঋণের এ তেজীভাব বেসরকারি খাতকে সংকুচিত করতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, সমাপ্ত অর্থবছরের শেষ দিন (৩০ জুন) পর্যন্ত ব্যাংকিং খাত থেকে সরকারের ঋণের পরিমাণ ছিল ১ লাখ ১৪ হাজার ৭০৪ কোটি টাকা। মাত্র ১৮ দিনের ব্যবধানে এর পরিমাণ গিয়ে দাঁড়ায় ১ লাখ ২৯ হাজার ৪৯৪ কোটি টাকায়।

তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখা যায় বাংলাদেশ ব্যাংক ছাড়াও তফসিলি ব্যাংক থেকেও বেড়ে চলেছে সরকারি ঋণ। ২০১৮-১৯ অর্থবছরে তফসিলি ব্যাংক থেকে ৮০ হাজার ৭২৫ কোটি টাকা সরকারি ঋণ থাকলেও তিন সপ্তাহে তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯৩ হাজার ৫৫৯ কোটি টাকায়। সুতরাং তফসিলি ব্যাংকগুলো থেকে সরকারি দেনা বেড়েছে ১২ হাজার ৮৩৪ কোটি টাকা।

অর্থসূচক/জেডএ/এমএস

এই বিভাগের আরো সংবাদ