ডিআইজি মিজানের সম্পদের প্রতিবেদন দুদকে

পুলিশের বিতর্কিত ডিআইজি মিজানুর রহমানের সম্পদের অনুসন্ধান শেষ হয়েছে বলে জানিয়েছেন দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ। তিনি বলেন, এ-সংক্রান্ত প্রতিবেদন এরই মধ্যে কমিশনে জমা হয়েছে।

রবিবার (২৩ জুন) রাজধানীর সেগুনবাগিচায় দুদক প্রধান কার্যালয়ে কমিশনের বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে দুদক চেয়ারম্যান এসব কথা জানান।

ইকবাল মাহমুদ বলেন, ‘ডিআইজি মিজানের সম্পদের অনুসন্ধান প্রতিবেদন কমিশনে জমা হয়েছে। যাচাই-বাছাই করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’ কোনও আবেগি সিদ্ধান্ত দুদক নেবে না বলে জানান তিনি।

মিজানের সম্পদ খতিয়ে দেখতে নিয়োগ পাওয়া আগের অনুসন্ধান কর্মকর্তা দুদক পরিচালক খন্দকার এনামুল বাছিরকে গত ১০ জুন সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। পরে অনুসন্ধান কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োগ পান দুদকের আরেক পরিচালক মনজুর মোরশেদ। গত ১২ জুন তাকে নিয়োগ দেওয়া হয়।

এর আগে গত ২৩ মে মিজানের সম্পদ অনুসন্ধানের প্রতিবেদন জমা দিয়েছিলেন বাছির। সেটি আমলে নেয়নি দুদক।

মিজানের বিরুদ্ধে ওঠা দুর্নীতি ও অবৈধ সম্পদের অর্জনের অভিযোগে অনুসন্ধান শুরু হয় গত বছরের জানুয়ারিতে। এ ব্যাপারে প্রথম অনুসন্ধান কর্মকর্তা ছিলেন দুদক উপপরিচালক ফরিদ আহমেদ পাটোয়ারী।

অর্থসূচক/এমএস