সংখ্যালঘুদের ওপর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন

hamla

hamlaমাদারীপুরের প্রণব মঠসহ সারাদেশের সংখ্যালঘুদের ঘর-বাড়ীতে হামলার প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ।

রোববার সকালে জাতীয় পেসক্লাবের সামনে এক মানববন্ধনে এ প্রতিবাদ জানান সংগঠনটির ঢাকা মহানগর শাখা।

মানবন্ধনে অবিলম্বে এ হামলার সুষ্ঠু তদন্ত করে হামলাকারীদের বিচারের আওতায় আনার দাবি জানান তারা।

তারা বলেন, তারা গতকাল(রোববার) সিরাজগঞ্জের খিদির বটতলায় কালী মন্দির ভাংচুর করে দুর্বৃত্তরা।এছাড়াও দেশের সব প্রান্তেই সংখ্যালঘুদের উপর একের পর এক হামলা হচ্ছে।

এ সময় বক্তারা বলেন, গত ১১ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় মৌলভীবাজারে বড়লেখা উপজেলা সদরে ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের পাঁচটি দোকান ও তিনটি বাড়ি ভাংচুর করে দুর্বৃত্তরা।

এর আগে গত ১৩ ডিসেম্বর রাতে মাদারীপুরের বাজিতপুরে প্রণব মঠে সাম্প্রদায়িক অপশক্তি ৩টি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে হামলা চালায় ও বৌদ্ধ মূর্তি ভাংচুর করে। ওইদিন গভীর রাতে রাজশাহীর বাঘা উপজেলার হাসাবপুরে দুর্বিত্তরা পূজামণ্ডপসহ তিনটি হিন্দু বাড়িতে আগুন দেয়।

তারা অভিযোগ করে বলেন, এতকিছুর পরও প্রাশাসন নিরব। কিছুই করছে না তারা। আর এজন্যই দেশ থেকে সাতক্ষীরা জেলা আলাদা হয়ে গেছে।

তারা দাবি করে বলেন, আমরা অবিলম্বে এই ধরনের হামলা বন্ধ করার আহবান জানাচ্ছি। সরকারকে অবশ্যই এই ঘটনা প্রতিহত করতে হবে।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন সংঘঠনের সভাপতি শুভনেন্দু বিকাশ সাহা, প্রেসিডিয়াম সদস্য মিলন কান্তি দত্ত, সহ-সম্পাদক নির্মল চ্যাটার্জি, যুব ঐকের সভাপতি ব্রজ গোপাল দেবনাথ, সাধারন সম্পাদক অ্যাড. পিন্টু, ঢাকার প্রণব মঠের অধ্যক্ষ স্বামী সঙ্গীতানন্দ মহারাজ প্রমুখ।

জেইউ/