রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের বিরোধিতা করে রাখাইনে বৌদ্ধদের বিক্ষোভ
বৃহস্পতিবার, ২৮শে মে, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের বিরোধিতা করে রাখাইনে বৌদ্ধদের বিক্ষোভ

মিয়ানমারে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন পরিকল্পনার বিরোধিতা করে মিয়ানমারে উগ্রপন্থী বৌদ্ধরা বিক্ষোভ করেছে। নিপীড়িত হয়ে মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদেরকে ‘পলায়নপর শরণার্থী’ আখ্যা দিয়ে প্রায় ১০০ বৌদ্ধ ভিক্ষুর নেতৃত্বে এই বিক্ষোভ করেছে তারা। খবর এএফপি।এই সময় বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের কোনোভাবেই যেন মিয়ানমারে ফিরে আসতে না দেয়া হয়, সরকারের প্রতি এই আহ্বান জানিয়েছে তারা।

তাদের দাবি, রাখাইনে রোহিঙ্গা মুসলমানদের ফিরে আসার মধ্যে মিয়ানমারের কোন স্বার্থ নেই। রোহিঙ্গারা মিয়ানমারের জন্য অত্যন্ত বিপজ্জনক।

এর আগে গত বছরের আগস্টে রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ওপর সেনা অভিযান শুরু হলে প্রায় সাত লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে আসে। তবে তাদের মিয়ানমারে ফিরিয়ে নিতে ইতোমধ্যে ঢাকা-নেইপিদো চুক্তি করেছে। চুক্তি অনুযায়ী এ মাসের শেষ নাগাদ ২২৬০ জন রোহিঙ্গার মিয়ানমার ফিরে যাওয়ার কথা ছিল। তবে নিরাপত্তার কারণ দেখিয়ে বাংলাদেশ সরকার কয়েক দিন আগেই ওই পরিকল্পনা স্থগিত করেছে।

উল্লেখ্য, প্রজন্মের পর প্রজন্ম ধরে রোহিঙ্গারা রাখাইনে থাকলেও মিয়ানমার তাদের নাগরিক বলে স্বীকার করে না। উগ্র বৌদ্ধবাদকে ব্যবহার করে সেখানকার সেনাবাহিনী ইতিহাসের বাঁকে বাঁকে স্থাপন করেছে সাম্প্রদায়িক অবিশ্বাসের চিহ্ন। ছড়িয়েছে বিদ্বেষ। ৮২-তে প্রণীত নাগরিকত্ব আইনে পরিচয়হীনতার কাল শুরু হয় রোহিঙ্গাদের। এরপর কখনও মলিন হয়ে যাওয়া কোনও নিবন্ধনপত্র,কখনও নীলচে সবুজ রঙের রশিদ,কখনও ভোটার স্বীকৃতির হোয়াইট কার্ড, কখনও আবার ‘ন্যাশনাল ভেরিফিকেশন কার্ড’ কিংবা এনভিসি নামের রং-বেরঙের পরিচয়পত্র দেওয়া হয়েছে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর মানুষকে। ধাপে ধাপে মলিন হয়েছে তাদের পরিচয়। ক্রমশ তাদের রূপান্তরিত করা হয়েছে রাষ্ট্রহীন।

অর্থসূচক/এসএফ

এই বিভাগের আরো সংবাদ