‘সহিংসতা প্রতিহত করবে সেনাবাহিনী’

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনাবাহিনী শুধু জেলা সদরে বসে থাকবে না, কোথাও সহিংসতা হলে সেখানে নিজ উদ্যোগে গিয়ে তা প্রতিহত করবে। প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বলে জানিয়েছেন, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন বীর বিক্রম।

আজ রোববার দুপুরে সিইসির সঙ্গে দেখা করার পর তিনি এসব কথা বলেন।

হাফিজ উদ্দিন বলেন, আমি সিইসিকে বলেছি, নির্বাচনে সেনাবাহিনী জেলা সদরে চুপ করে বসে থাকবে, নাকি তারা ফ্রিলি মুভ করবে। একটি এলাকায় ভোটকেন্দ্রের এক মাইল দূরে ভোটারদের কেন্দ্রে আসতে বাধা দেওয়া হলে তখন ভূমিকা কী হবে। জবাবে সিইসি আশ্বস্ত করেছেন, সেনাবাহিনী নির্বাচনী এলাকায় মুভ করবে। যেখানেই সন্ত্রাস হবে, দে উইল রান ফর দ্যাট।

সিইসি আরও বলেছেন, নির্বাচনী এলাকায় কোনো ধরনের সহিংস ঘটনা হলেই সেনাবাহিনী তা প্রতিহত করবে। সেনাবাহিনী নিজ উদ্যোগে ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রতিহত করবে। তারা বসে থাকবে না।

সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে হাফিজ উদ্দিন বলেন, বিএনপির মহাসচিবের নির্দেশে আমি সিইসির সঙ্গে সাক্ষাত করেছি। সারাদেশে বিএনপির নেতাকর্মীদের মামলা দিয়ে গ্রেফতার করা হচ্ছে। তারা এলাকা ছাড়া। আমি নিজে ছয়বার নির্বাচনে জয়ী হয়েছি। এখন এলাকায় যেতে পারছি না। আমার মতো অনেক নেতা এলাকার বাইরে আছেন। তফসিল ঘোষণার পর হয়রানিমূলক যেসব মিথ্যা মামলা দেওয়া হয়েছে, তা সিইসিকে জানিয়েছি। তিনি বলেছেন, পুলিশ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেবেন। এছাড়া সংশ্লিষ্ট জেলার পুলিশ প্রশাসনকেও তিনি এ বিষয়ে নির্দেশ দেবেন।

অর্থসূচক/কেএসআর