জুয়ার বাজিতে মেয়েকে হারালেন বাবা!

Indian Girl Portraitজুয়ার নেশায় উন্মত্ত হয়ে বাজিতে বউ হারানোর ঘটনা আছে উপমহাদেশের পুতি-পুরাণে। কিন্তু বাজিতে মেয়ে হারানোর নজির নেই। দায় নিতে পারবেন না বলেই হয়তো পুতি-পুরাণের লেখিয়েদের কাছে বাজিতে মেয়েকে হারানোর উপাখ্যান রচনাটাও ছিলো লজ্জার।  অথচ এই একবিংশ শতকে এসেও সেই লজ্জার ধারে-কাছে দিয়ে গেলেন না এক বাবা! খবর জিনিউজ।

 

চলতি মাসের এক তারিখ নেশায় উন্মত্ত হয়ে জুয়ার আসরে নির্দ্বিধায় আপন মেয়েকে  বাজিতে লাগিয়ে হেরে গেলেন! এই নির্লজ্জ বাবা এতোটাই অধম যে, দ্বিগুণ বয়সী লোকের কাছে এখন মেয়েকে তুলে দেওয়ার তোড়জোড় শুরু করেছেন; শুধু তাই নয়, এই জন্য মাত্র অষ্টম শ্রেণীর অভাগা মেয়েটির বিদ্যালয়ে যাওয়াটাও বন্ধ করে দিয়েছেন। ঘটনাটা ঘটেছে ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী মালদার কৃষ্ণপুরের বুড়িতলা নামে একটি গ্রামে।

জানা গেছে, প্রতিদিনের মতো ডিসেম্বরের এক তারিখ জুয়ারি বাবা খেলতে বসেন গ্রামের সুকুমার মন্ডল নামক আরেক জুয়ারির সঙ্গে। খেলায় সব কিছু হারিয়ে এক পর্যায়ে তিনি মেয়েকে বাজিতে ধরে হেরে যান। এর পরের দিন থেকেই সুকুমারের তাড়ায় মেয়েকে বিয়ে দেয়ার তোড়জোড় শুরু করেন। বিয়ের দিন ধার্য্য করা হয়েছে আসছে বছরের ২২ জানুয়ারি। কিন্তু ইতিমধ্যে সম্পন্ন হয়ে গেছে বাগদান অনুষ্ঠান, ৯ ডিসেম্বর বাগদান অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। আর এই বাজির বিয়ের জন্য ছাড়িয়ে দেয়া হয়েছে মেয়ের পড়াশুনা।

যোগাযোগ করা হলে হাবিবপুরের বিডিও অর্ণব রায় জানান, বিস্তারিত খবরের জন্য ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের ঐ গ্রামে লোক পাঠানো হয়েছে। অপ্রাপ্তবসষ্ক মেয়েটির বিয়ে ঠেকাতে আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবো।