প্রজাপতির ডানায় রঙিন জাবি ক্যাম্পাস

JU Butterfly

JU  Butterflyজাল দিয়ে ঘেরা প্রদর্শনী স্টল। ফুলের ওপর সাত রঙের প্রজাপতিরা উড়ে উড়ে খেলা করছে। বাইরে থেকে প্রজাপতির রং আর খেলা মুগ্ধ হয়ে দেখছে শিশু, কিশোরসহ সব বয়সের মানুষ। প্রজাপতির পাখার রং ক্যামেরায় বন্দির খেলায় ব্যস্ত কেউ কেউ। আজ জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে আয়োজিত প্রজাপতি মেলার এমন দৃশ্যই চোখে পড়ে। ‘উড়লে আকাশে প্রজাপতি প্রকৃতি পায় নতুন গতি’ এই স্লোগান নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগ দিনব্যাপী এ মেলার আয়োজন করে। আর মেলা উপলক্ষে সাবেক শিক্ষার্থী ও সাধারনের পদচারণায় মুখরিত হয়ে উঠে ক্যাম্পাস।

জানা যায়, আজ সকাল নয়টায় মেলা আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য অধ্যাপত এমএ মতিন। এ সময় তিনি বলেন, প্রজাপতি মেলা আয়োজনের মধ্য দিয়ে এ বিশ্ববিদ্যালয় তারা আলাদা বৈশিষ্ট্য তুলে ধরছে। দিনব্যাপী আয়োজিত এ মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন সহ-উপাচার্য অধ্যাপক আফসার আহমেদ। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মেলার আহবায়ক অধ্যাপক মনোয়ার হোসেন।

মেলায় শিশুদের জন্য চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, প্রজাপতি বিষয়ক বির্তক প্রতিযোগিতা, প্রজাপতির ডকুমেন্টারি প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়। সকাল ৯টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের জহির রায়হান মিলনায়তনের করিডোরে শিশুদের নিয়ে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। জাল টাঙিয়ে কৃত্রিম বাগান তৈরি করে বোটানিকাল গার্ডেনে ব্যবস্থা করা হয় প্রজাপতির ঘর। আগত দর্শনার্থী শিশু, কিশোর, বয়স্ক সবাই ঘুরে ঘুরে মেলায় প্রজাপতির সৌন্দর্য উপভোগ করে।

ঢাকার মিরপুর থেকে রিফাত ভোরেই তার মা-বাবাকে নিয়ে প্রজাপতি মেলা দেখতে ক্যাম্পাসে ছুটে আসে। রিফাত মিরপুরের একটি কিন্ডার গার্টেনের প্রথম শ্রেণির ছাত্রী। সে জানায়, মেলায় এসে নানা রঙের প্রজাপতি দেখে তার খুব ভালো লাগছে।

বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সাধারণ-সম্পাদক ড. শরিফ উদ্দিনের ছোট্ট ছেলে অর্নব জানায়, মেলায় অনেক প্রজাপতি দেখে তার ভালো লাগছে। সে কয়েকটি প্রজাপতি বাসায় নিয়ে যেতে চায়। আয়োজকরা জানিয়েছেন, পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় প্রজাপতির ভূমিকা তুলে ধরে গণসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে এ মেলার আয়োজন করা হয়েছে।

এএস