কুষ্টিয়ায় আমন চাষের উৎপাদন ২১৯৭১৭ মেট্রিক টন

kustia

kustiaকুষ্টিয়ায় গত আমন মৌসুমে কুষ্টিয়ায় চাল উৎপাদন হয়েছে ২ লাখ ১৯ হাজার ৭১৭ মেট্টিক টন। মৌসুমের শুরুতে জেলায় আমন চাষের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয় ৭২ হাজার ৭০৫ হেক্টর। এর মধ্যে উফশি ৭১ হাজার ৮১১ হেক্টর এবং স্থানীয় ৮৪৯ হেক্টর। লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে আমন চাষ হয় ৭৫ হাজার ৮৮৫ হেক্টর। এর মধ্যে উফশি জাতের আমন চাষ হয় ৭২ হাজার ৮৪০ হেক্টর।

স্থানীয় ১৩৮০ হেক্টর এবং হাইব্রিড জাতের আমন চাষ হয় ১৬৬৫ হেক্টর। আমন চাল উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয় ১ লাখ ৯৬ হাজার ২৯০ মেট্টিক টন। আমন চাষ বৃদ্ধি পাওয়ায় চাল উৎপাদন হয়েছে ২ লাখ ১৯ হাজার ৭১৭ মেট্টিক টন। এ বছর কুষ্টিয়ায় উফশি জাতের আমনের চাল উৎপাদন হয়েছে ২ লাখ ১১ হাজার ৮৭২ মেট্টিক টন। উফশি জাতের হেক্টর প্রতি গড় ফলন হয়েছে ২.৯ মেট্টিক টন। স্থানীয় জাতের আমন চাল উৎপাদন হয়েছে ১৫১৮ মেট্টিক টন, হেক্টর প্রতি গড় ফলন হয়েছে ১.১ মেট্টিক টন। হাইব্রিড জাতের আমন চাল উৎপাদন হয়েছে ৬৩২৭ মেট্টিক টন, হেক্টর প্রতি গড় ফলন হয়েছে ৩.৮ মেট্টিক টন। জেলায় আমনের গড় ফলন হয়েছে ২.৩৬ মেট্টিক টন। জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের রেজিষ্ট্রার বিভাগের তথ্যমতে গত অর্থ বছরে কুষ্টিয়ায় মোট চাল উৎপাদন হয়েছিল ৪ লাখ ৪৮ হাজার ৫৮৪ মেট্টিক টন। ওই বছর মোট উৎপাদনের ৪৯ ভাগ আমন চাল উৎপাদন হয়েছে।

গতবছর জেলায় মোট চালের চাহিদা ছিল ৩ লাখ ৯০ হাজার ৪১৯ মেট্টিক টন। চাহিদার ৫৬.২ ভাগ উৎপাদন এসেছে আমন চাল থেকে। জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ লুৎফর রহমান জানান, গত বছর বোরো মৌসুমে কৃষক বোরো চাষ কমিয়ে দেয়। বাজার মূল্য কম হওয়ায়। যার ফলে আমনের চাহিদা বৃদ্ধি পায়। আবার আমন মৌসুমে ধান ব্যতিত অন্য ফসল চাষ কম হয় যার ফলে আমনে সর্বাধিক জমির ব্যবহার হয়। আবার আমন মৌসুমে আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় চাষ বৃদ্ধি পেয়েছে।

কুষ্টিয়া সদর উপজেলার বড়িয়া-টাকিমারার কৃষক আবুল বাশার জানান, আমন মৌসুমে চাষ খরচ কিছুটা কম হয়। বৃষ্টিপাত হওয়ায় সেচ খরচ কমে যার ফলে তারা আমন চাষ বাড়িয়ে দেয়।