অদম্য লড়াইয়ের আরেক নাম প্রিয়েশ
বৃহস্পতিবার, ২০শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

অদম্য লড়াইয়ের আরেক নাম প্রিয়েশ

প্রবল ইচ্ছাশক্তির কাছে হার মানতে হয়েছে ক্যান্সারকেও। হ্যাঁ, শুধু অদম্য ইচ্ছাশক্তি ও মনের জোরকে সম্বল করেই সিবিএসই-র দশম শ্রেণির বোর্ড পরীক্ষা দিয়েছিল ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লির প্রিয়েশ তয়াল। শেষ পর্যন্ত ৯৬ শতাংশ নম্বর সহ পাশ করে দৃষ্টান্ত তৈরি করল ১৬ বছরের এই কিশোর।

হাসপাতালের বিছানায় প্রিয়েশ তয়াল

প্রিয়েল তয়ালের শরীরে বাসা বেঁধেছে মারন রোগ ক্যান্সার। তাঁকে নিয়মিত কেমোথেরাপি নিতে হচ্ছে । প্রায় ৬ মাস ধরে তাঁর বেশিরভাগ সময় কেটেছে হাসপাতালের বিছানায়। এমনকি পরীক্ষার কয়েকদিন আগেও বিভিন্ন রকম শারীরিক জটিলতা দেখা দেওয়ায় হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়েছিল তাঁকে । তা সত্ত্বেও নিজের লক্ষ্য থেকে একচুল টলানো যায়নি প্রিয়েশকে। ক্যান্সারের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ও পাঠ্যবইয়ের অনুশীলন দুইই চলতে থাকে সমানে।।

নয়াদিল্লির একটি বেসরকারি হাসপাতালের বিশেষজ্ঞ চিকিত্সক ডা. মানস কালরার অধীনে চিকিৎসাধীন সে। তিনি জানান, এই ধরনের জটিল রোগের ক্ষেত্রে দুই থেকে আড়াই বছর নিরবিচ্ছিন্ন চিকিত্সার মধ্যে দিয়ে যেতে হয় সবাইকে। কেমোথেরাপির ফলে শরীরে যন্ত্রণা থেকে শুরু করে বিভিন্ন উপসর্গ দেখা যায়। যা রীতিমতো কষ্টের। ঠিকমতো ঘুম হয় না। সমস্ত কিছু সহ্য করেই পরীক্ষার প্রস্তুতি নিয়েছে সে। এজন্য কোনও প্রশংসাই যথেষ্ট নয়।

প্রিয়েশের মা জানান, ব্লাড ক্যান্সার শুনেই প্রথমেই খুব ঘাবড়ে গিয়েছিলেন তারা। ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে প্রথম রোগটি ধরা পরে। ঠিকমতো পরীক্ষা দেওয়া নিয়েও সংশয় দেখা দিয়েছিল একসময়। যদিও নিজের কৃতিত্বে নিয়ে বেশি ভাবতে নারাজ প্রিয়েশ। ভবিষ্যতে আইআইটিতে ভর্তি হওয়ার ইচ্ছা তার। যোগ্যতম সৈনিক হয়েই জীবন যুদ্ধের লড়াইয়ে জিততে চায় সে। হারাতে চায় ক্যান্সারকে।

এই বিভাগের আরো সংবাদ