ArthoSuchak
বুধবার, ১লা এপ্রিল, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

এলটিইউ’র ৩১ হাজার ২৯৭ কোটি টাকার রাজস্ব আয়

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) অধীন মূল্য সংযোজন করের (ভ্যাট) বৃহৎ করদাতা ইউনিট (এলটিইউ) চলতি ২০১৭-১৮ অর্থবছরের প্রথম নয় মাসে (জুলাই-মার্চ) রাজস্ব আয় করেছে ৩১ হাজার ২৯৭ কোটি টাকা। যা রেকর্ড বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। গত অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় এ আয় প্রায় ১৮ শতাংশ বেশি।

২০১৬-১৭ অর্থবছরের জুলাই-মার্চ সময়ে এলটিইউয়ের রাজস্ব আয়ের পরিমাণ ছিল ২৬ হাজার ৩৮৮ কোটি ৪৯ লাখ টাকা।

এদিকে, একক মাস হিসেবে মার্চে রাজস্ব আয়ের ক্ষেত্রে উচ্চ প্রবৃদ্ধি অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে এলটিইউ। মার্চ মাসে এলটিইউ তিন হাজার ৭৮০ কোটি ৪৭ লাখ টাকার রাজস্ব আয় করেছে। গতবছরের মার্চে এর পরিমাণ ছিল তিন হাজার ৪৫২ কোটি ৩৮ লাখ টাকা।

এ বিষয়ে ভ্যাট এলটিইউ কমিশনার মো. মতিউর রহমান বলেন, সময়োপযোগী কৌশল গ্রহণ এবং প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন, ভ্যাট অডিট ও বকেয়া আদায় কার্যক্রম জোরদার করায় রাজস্ব আয়ের ক্ষেত্রে উচ্চ প্রবৃদ্ধি অর্জন করা সম্ভব হয়েছে। এছাড়া নিয়মিত পরিদর্শন ও অডিটের মাধ্যমে কর ফাঁকি রোধ করা সম্ভব হচ্ছে। এর ফলে রাজস্ব আয় বেড়েছে।

তিনি বলেন, কোন প্রতিষ্ঠান যেন কর রেয়াতের অসৎ ব্যবহার করতে না পারে, সেদিকেও সতর্ক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, এনবিআর থেকে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান কর রেয়াত পেয়ে থাকে। দেখা যায় একটি প্রতিষ্ঠানের যে পরিমাণ কর রেয়াত পাওয়ার কথা, কৌশলে তার তুলনায় বেশি রেয়াত নিচ্ছে। এমন কিছু কর ফাঁকির ঘটনা আমরা ইতোমধ্যে উদঘাটন করতে সক্ষম হয়েছি। সেখান থেকেও বড় অংকের ভ্যাট রাজস্ব এসেছে।

মতিউর রহমান বলেন, বরাবর মোট ভ্যাট রাজস্ব আয়ের ৫৪ থেকে ৫৫ শতাংশ এলটিইউ আয় করে থাকে। কিন্তু এখন এলটিইউয়ের অবদান অনেক বেড়েছে। গত নয় মাসে মোট ভ্যাট রাজস্ব আয়ের ৬৬ শতাংশ এসেছে এলটিইউ থেকে। বিভিন্ন ধরনের উদ্ভাবনী কৌশল গ্রহণ করায় এলটিইউ রাজস্ব আয় বাড়াতে সক্ষম হয়েছে বলে তিনি দাবি করেন।

উল্লেখ্য, চলতি অর্থবছরে জুলাই-মার্চ সময়ে মোট ভ্যাট রাজস্ব আয়ের পরিমাণ ৫৭ হাজার ৭৫০ কোটি টাকা। বাসস।

অর্থসূচক/এসবিটি

এই বিভাগের আরো সংবাদ