চুড়ান্ত অনুমোদন পাচ্ছে আরও দুই বিমা কোম্পানি
সোমবার, ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » ব্যাংক-বিমা

চুড়ান্ত অনুমোদন পাচ্ছে আরও দুই বিমা কোম্পানি

Insuranceপ্রাথমিক অনুমোদন পাওয়া ১১টি বিমা কোম্পানির মধ্যে চুড়ান্ত অনুমোদন পাচ্ছে আরও দুই কোম্পনি। কোম্পানি দুটি হচ্ছে প্রটেকটিভ লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি ও জেনিথ ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড। কোম্পানি দুটির প্রধান উদ্যোক্তা হচ্ছেন যথাক্রমে সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ নেতা মেজর (অব.) রফিকুল ইসলাম এবং আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও গবেষণা সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলী এমপির জেনিথ ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড। আগামি দু’কার্যদিবসের মধ্য কোম্পানি কর্তৃপক্ষের কাছে চিঠি যাবে। বিমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ) থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

আইডিআরএ সূত্র জানা যায়,গত চার জুলাই অনুমোদন পাওয়া নতুন ১১টি বিমা কোম্পানির মধ্যে এ পর্যন্ত তিনটি বিমা কোম্পানিকে অনুষ্ঠানিকভাবে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। অনুমোদন পাওয়া তিনটি কোম্পানি হল রেলমন্ত্রী মুজিবুল হকের সোনালী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড, জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ উপাধ্যক্ষ আবদুস শহীদের চার্টার্ড লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড এবং সিকদার গ্রুপের মমতাজুল হক সিকদার ও জয়নুল হক সিকদারের সিকদার ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড।
জানা যায়,এসব কোম্পানি বিমা উন্নয়ন নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষের যাবতীয় শর্ত পরিপালন করায় লাইসেন্স দেওয়া হয়েছে। অবশিষ্ট সাতটি বিমা কোম্পানির মধ্যে তাইয়ো সামিট লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি এখনও সংঘস্মারক আইডিআরএ জমা না দেওয়ায় কোম্পানিটির লাইসেন্স পেতে কিছুটা দেরি হবে। বাকি ছয়টি বিমা কোম্পানির চূড়ান্ত অনুমোদন খুব শিগগিরই দেওয়া হবে বলে জানা গেছে।
এবিষয়ে আইডিআরএ সদস্য ফজলুল করিম অর্থসূচককে বলেন, আমরা ইতোমধ্যে তিনটি বিমা কোম্পানিকে ব্যাবসায়ী কর্যক্রম পরিচালনার জন্য চুড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছি। এখন কোম্পানিগুলো তাদের ব্যাবসার কার্যক্রম পরিচালনার জন্য জনবল নিয়োগের কর্যক্রম শুরু করছে।
শাখার বিষয়ে ফজলুল করিম বলেন, অনুমোদন পাওয়া তিনটি কোম্পানির কর্তৃপক্ষ এখনো কোনো শাখা খোলার অনুমোদন চায়নি। তারা আবেদন করলে শাখা খোলারও অনুমোদন দেওয়া হবে। এদিকে, এর আগে গত ১০ ফেব্রুয়ারি বিমাকারীর নিবন্ধন প্রবিধানমালা-২০১৩ গেজেট আকারে প্রকাশিত হয়।গেজেট প্রকাশের পর গত ২০ ফেব্রুয়ারি থেকে ৩১ মার্চ পর্যন্ত নতুন বিমা কোম্পানির নিবন্ধনের জন্য আবেদনপত্র দাখিল করতে আইডিআরএ’র পক্ষ থেকে নির্দেশ দেওয়া হয়। পরে তিন দফা সময় বাড়িয়ে ১৫ মে পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়। সর্বশেষ নতুন বিমার অনুমোদনের জন্য ৭৭টি আবেদন জমা পড়ে। পরে আবেদনগুলো যাচাই বাছাই করে গত ১৬ থেকে ২০ জুন পর্যায়ক্রমে এসব আবেদনের ওপর শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। শুনানি শেষে গত চার জুলাই ১১টি নতুন বিমা কোম্পানির অনুমোদন দেওয়া হয়। অর্থসূচক/জিইউ
এই বিভাগের আরো সংবাদ