ফিলিস্তিনিদের বাস্তবতা মানতে হবে: নেতানিয়াহু

ইসরাইলের প্রেসিডেন্ট বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু।

শান্তির পথে এগুতে হলে ফিলিস্তিনিদেরকে জেরুজালেম ইসরায়েলের রাজধানী এ বাস্তবতা মেনে নিতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী ঘোষণার পর ইউরোপে প্রথম বিদেশ সফরে বের হওয়া নেতানিয়াহু প্যারিসে ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁর সঙ্গে আলোচনার পর এক সংবাদ সম্মেলনে ওই কথা বলেন।

তিনি বলেন, ৩ হাজার বছর ধরে জেরুজালেম ইসরাইলের রাজধানী। এবং সে সময় এটা অন্য কোনো লোকেদের রাজধানী ছিল না। এটি কখনওই অন্য কোনো জাতির রাজধানী হতে পারে না।

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাঁক্রোর সঙ্গে বৈঠকে ইসরাইলের প্রেসিডেন্ট বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। ছবি সংগ্রহ।

জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ঘোষণার পর মুসলিম এবং আরব দেশগুলো এর সমালোচনা করেছে। এর মধ্যেই নতুন এই ঘোষণা দিলেন নেতানিয়াহু।

নেতানিয়াহু বলেন, ইহুদি জনগণের সঙ্গে জেরুজালেমের হাজার বছরের যোগসূত্রকে অস্বীকার করার চেষ্টা করাটা উদ্ভট। ফিলিস্তিনিরা এ বাস্তবতাকে যত তাড়াতাড়ি উপলব্ধি করতে পারবে, তত তাড়াতাড়ি আমরা শান্তির পথে এগুতে পারব।

শান্তি প্রক্রিয়ার জন্য জেরুজালেমের স্বীকৃতি অপরিহার্য উল্লেখ করে নেতানিয়াহু বলেন, শান্তি প্রতিষ্ঠা করতে হলে তা সত্যের ভিত্তির ওপরই গড়ে তুলতে হবে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী ঘোষণা করা নিয়ে মুসলিম ও আরব বিশ্বে চলমান বিক্ষোভের মধ্যে নেতানিয়াহু এ কথাগুলো বলেন।

ট্রাম্পের বিতর্কিত ওই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে রোববার লেবাননে মার্কিন দূতাবাসের কাছেও সহিংসতা হয়েছে। ট্রাম্পের সিদ্ধান্তের ব্যাপক নিন্দা-সমালোচনাও হচ্ছে।

ইসরাইল বরাবরই জেরুজালেমকে তাদের রাজধানী হিসাবে দাবি করে এসেছে। ওদিকে, ফিলিস্তিনিরা পূর্ব জেরুজালেমকে তাদের ভবিষ্যৎ রাষ্ট্রের রাজধানী হিসাবে দাবি করে আসছে। যা ১৯৬৭ সালের যুদ্ধে ইসরাইলের দখল করে নেয়।

অর্থসূচক/এসবিটি