‘প্রথম প্রাণ এসেছিল মাটির তলেই’

Gallery_Image_8047মাটির অতলের জল থেকেই যাত্রা শুরু হয় প্রাণের; যদিও এতোদিন পর্যন্ত ধারণা করা হতো, ভূ-পৃষ্ঠের উপরকার কোন সমুদ্র বা লেক এর প্রাইমোরডিয়াল সুপ থেকে উদ্ভব হয়েছিলো প্রাণের। খবর ওয়েবসাইটর।

 

মিশিগান স্টেট বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক পরিচালিত এক গবেষণা থেকে জানা গেছে, ভূ-পৃষ্ঠের গভীরে কঠিন পাথরের ক্ষুদ্র এক ফাটলের মধ্যে জমা জলেই জন্মনিয়েছিল প্রথম প্রাণ। এই প্রাণের আবার প্রতিলিপি তৈরি করার ক্ষমতাও ছিলো।

এই গবেষণার ফলাফল অনুযায়ী, ভূ-পৃষ্ঠের উপর থাকা জীব জগত থেকে সম্পূর্ণ ভিন্ন পরিবেশে বেড়ে উঠা  মাইক্রোবস ভূ-পৃষ্ঠ থেকে ৫ কিমি অভন্ত্যরে জলে বাস করতো। মাটির উপরকার জীব জগতের সঙ্গে তাদের কোন সম্পর্ক না থাকা সত্ত্বেও পৃথিবীর জীবজগতের সাথে এদের জিনগত সাদৃশ্য দেখতে পাওয়া যায়। এরা ভূ-পৃষ্ঠের উপরকার জীব জগতের থেকে একেবারে পৃথক হয়ে পৃথিবীর গভীরে লক্ষ লক্ষ বছর আগে থেকে বসবাস করেছে। কিন্তু ভূ-পৃষ্ঠের দুই দিকের পৃথক দুই জীব জগতের মধ্যেকার জিনগত সাদৃশ্য ইঙ্গিত করে যে, ৩.৫ বিলিয়ন বছর আগে পৃথিবীতে প্রাণসঞ্চারের প্রথমলগ্নেই এই দুই জগতে সঞ্চরণশীল একই পূর্বপুরুষ থেকে মাইক্রোবসের উদ্ভব।

মিশিগান স্টেট বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক ম্যাট স্ক্রেঙ্ক জানিয়েছেন এই গবেষণা এই ইঙ্গিত দিয়ে যায় ,পৃথিবীর বুকের গভীরে মাটির অতলেই জন্ম নিয়েছিল প্রথম প্রাণ।