যুক্তরাজ্যে ইমিগ্রেশন
শনিবার, ১২ জুলাই, ২০২০
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » টিপস (প্রবাস)

যুক্তরাজ্যে ইমিগ্রেশন

ukemigrationনির্দিষ্ট সময়ের জন্য চাকুরী বা পড়াশোনা করতে এ দেশের পেশাজীবী ও শিক্ষার্থীগণ যুক্তরাজ্যে গিয়ে থাকেন। মাইগ্রেশনের ক্ষেত্রে যুক্তরাজ্যে শিক্ষাগত যোগ্যতার পাশাপাশি বেশ কিছু শর্ত পূরন করতে হয়।
যুক্তরাজ্যের মাইগ্রেশনের শর্তাবলী

যুক্তরাজ্যের মাইগ্রেশনের জন্য যেসব শর্তাবলী পূরণ করতে হয় তা হলো
ক) মাইগ্রেশনে অগ্রাধিকার ভিত্তিক পেশা হলো বিজনেস, হোটেল ম্যানেজমেন্ট, আর্কিটেক্ট, ডেন্টিস্ট, ফার্মাসিস্ট, নার্স, সোশ্যাল ওয়ার্কার এবং শেফ।
খ) যোগ্যতার ক্ষেত্রে বয়স, শিক্ষাগত যোগ্যতা, ভাষার দখল, চাকুরীর অভিজ্ঞতার উপর ভিত্তি করে মোট ১০৫ পয়েন্ট অর্জনের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। এর মধ্যে সর্বনিম্ন  ৪৮ পয়েন্ট অর্জন করলে ভিসার জন্য আবেদন করা যায়।
গ) যোগ্যতার প্রাপ্য পয়েন্টগুলো নিম্নরুপ
•    ব্যাচেলর ডিগ্রীর জন্য ৩০ পয়েন্ট, মাস্টার ডিগ্রীর জন্য ৩৫ পয়েন্ট, পিএইচডির জন্য ৫০ পয়েন্ট।
•    ল্যাংগুয়েজের পয়েন্ট ২৫, তবে আইইএলটিএস- এ  ৬.৫ না পেলে এই পয়েন্ট বিবেচনা করা হয় না।
•    সর্বনিম্ন বয়স ২৮ এর জন্য ২০ পয়েন্ট; বয়স ২৮ – ২৯ এর জন্য ১০ পয়েন্ট, ৩০ – ৩১ এর জন্য ৫ পয়েন্ট।
•    স্টুডেন্টরা যে কলেজে পড়তে যাবে সেখান থেকে অফার লেটার আসলে সেক্ষেত্রে ৩০ পয়েন্ট পাওয়া যায়।
•    ব্যাংক সলভেন্সীর জন্য ১০ পয়েন্ট অর্জন করা যায়।
ঘ) আবেদনকারীর ইংরেজী ভাষায় ভাল দক্ষতা থাকতে হবে। এতে আইএলটিএস- এ পেশাজীবির ক্ষেত্রে সর্বনিম্ন স্কোর ৬.৫ এবং স্টুডেন্টের ক্ষেত্রে সর্বনিম্ন ৪.৫ স্কোর থাকতে হবে।
ঙ) ঢাকাস্থ যুক্তরাজ্য দূতাবাসে ভিসার ইন্টারভিউ হয়ে থাকে।
চ) সম্পূর্ণ প্রক্রিয়া শেষ করে ভিসা পেতে ১২ মাস থেকে ২৪ মাস সময় লেগে যায়। তবে স্টুডেন্ট ভিসা পেতে ২ মাস থেকে ৩ মাস পর্যন্ত সময় লাগে।
ছ) কোন কারণে ভিসা আবেদন রিফিউজ হলে আপিল করার সুযোগ রয়েছে। একজন আইনজীবির মাধ্যমে পুনরায় আবেদন করা যায়।
জ) যুক্তরাজ্যে পরিবারসহ মাইগ্রেশন করতে হলে একজনকে প্রধান মাইগ্রেট করতে হয়। প্রধান মাইগ্রেটের ব্যাংক একাউন্টে  ৬০,০০,০০০ (ষাট লক্ষ) টাকা জমা দেখাতে হয়।
ভিসা সংগ্রহের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র
ভিসা আবেদনের জন্য যে সব কাগজপত্র জমা দিতে হয় সেগুলো হল –
•    একাডেমিক সার্টিফিকেট
•    ৫ বৎসরের অভিজ্ঞতার সার্টিফিকেট
•    ৪ কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি
•    ম্যারেজ সার্টিফিকেট (বিবাহিত হলে)
•    পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট
•    পাসপোর্টের প্রথম ৬ পৃষ্ঠার ফটোকপি
•    জন্ম সনদ পত্র
•    মেডিকেল সার্টিফিকেট
•    ফিন্যান্সিয়াল স্টেটমেন্ট
•    ইনকাম ট্যাক্স স্টেটমেন্ট (পেশাজীবীর ক্ষেত্রে)
পাসপোর্ট সেকশনের সময়সূচি
ব্রিটিশ হাইকমিশন অফিসে ব্রিটিশ পাসপোর্ট সেকশন সপ্তাহের রবিবার থেকে বুধবার সকাল ৯ টা থেকে দুপুর ১২ টা পর্যন্ত খোলা থাকে।
দূতাবাসের ঠিকানা
ব্রিটিশ হাইকমিশন, ইউনাইটেড নেশনস রোড, বারিধারা, ঢাকা-১২১২। ওয়েব সাইটের ঠিকানা www.ukinbangladesh.fco.gov.uk
এই বিভাগের আরো সংবাদ