মনপুরায় আ.লী বিএনপি সংঘর্ষ
বৃহস্পতিবার, ২৮শে মে, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » বরিশাল

মনপুরায় আ.লী বিএনপি সংঘর্ষ

vholaভোলার মনপুরায় ২৩ মার্চ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের গণসংযোগকালে সোমবার রাতে দক্ষিণ সাকুচিয়া এলাকায় আ’লী ও বিএনপি সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থীদের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ ও গুলি বিনিময় হয়েছে।

ঘণ্টা ব্যাপী কয়েক দফা সংঘর্ষে আহত হয়েছে কম পক্ষে ১০ জন। এ সময় ওই এলাকায় আতংক ছড়িয়ে পড়ে। রাত ১০টা পর্যন্ত আ.লীগ সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী সেলিনা চৌধুরীর লোকজন বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী উপজেলা বিএনপি সভাপতি সামসুদ্দিন বাচ্চু চৌধুরীর ছেলে রাকিবুল হাসান ও চাচা হেলাল তালুকদারকে অবরুদ্ধ করে রাখে। পরে পুলিশ ওই দুজনকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। রাকিবকে ছেড়ে দিলেও হেলাল তালুদারকে গুলি ও হামলা মামলার আসামি হিসেবে আটক দেখানো হয়।

স্থানীয়রা জানান, এর আগে বিকেলে উপজেলা চেয়ারম্যান নজির আহম্মেদের বাড়ির কাছে ঢাবি মার্কের সামনে আ.লীগ ও বিএনপি কর্মীদের মাধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়। এ সময় এক মহিলাসহ আহত হয় ৮/১০ জন। এ ঘটনার জের ধরে সন্ধ্যার পর রাকিব হেলাল তালুকদারের বাড়িতে অবস্থান নিয়ে তার ওপর চড়াও হয় আ.লীগ কর্মীরা। এ সময় হেলাল তালুকদারের বাড়ির ভেতর থেকে কয়েক রাউন্ডা গুলি ছোড়া হয়। এ সময় উত্তেজনা চরমে পৌঁছায়। কয়েকজন ওই বাড়িতে হামলার চেষ্টা করে।

সেলিনা চৌধুরী জানান, তার গনসংযোগকালে লোকজনের উপর গুলি চালায় রাকিব ও হেলাল তালুদার।  তাদের পক্ষে কোন গুলি বর্ষনের ঘটনা  ঘটেনি। মনপুরা থানার ওসি জানান, গুলি বর্ষনের ঘটনায় হেলাল তালুদারকে আটক করা হয়েছে। রাকিব  উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী থাকায় তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে ।

সামসুদ্দিন বাচ্চু চৌধুরী জানান, তার লোজন গণসংযোগ করতে পারছে না। তাদের উপর একের পর এক হামলা করা হচ্ছে। তিনি সুষ্ঠু নির্বাচন আশা করতে পারছেন না।

পিএম/সাকি

এই বিভাগের আরো সংবাদ