গোদাগাড়ী আদিবাসীদের বাড়িতে অগ্নিসংযোগ, আহত ১০

rajshahi Clash

rajshahi mapরাজশাহীর গোদাগাড়ীতে আদিবাসীদের বাড়িঘরে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। আগুনে আদিবাসীদের ৫টি বাড়ি ভস্মীভূত হয়েছে। এসময় দুর্বৃত্তদের হামলায় ১০ জন আদিবাসী আহত হয়েছেন ।

রোববার গভীর রাতে উপজেলার মোহনপুর ইউনিয়নের বাউটিয়া পোতাহারপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় আদিবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গভীর রাতে ১৫ থেকে ২০ জন সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্র নিয়ে মঙ্গল হেমব্রম, গনেশ মার্ডি, বাবুলাল মার্ডি, সনাতন মার্ডি ও মারাং হেমব্রমের বড়িতে হামলা চালায়। এসময় সন্ত্রাসীরা আদিবাসীদের ৫টি বাড়িতে অগ্নিসংযোগ করে। সন্ত্রাসীদের লাঠিসোটা ও দেশীয় ধারালো অস্ত্র ১০ জন আদিবাসী আহত হয়।

আহতরা হলেন মঙ্গল হেমব্রম, গনেশ মার্ডি, বাবু লাল মার্ডি, সনাতন মার্ডি, মারাং হেমব্রম, মারিয়া সরেন, সোনামনি হেমরম, শেফালী সরেন, কানাই মার্ডি ও সেলিনা সরেন। আহতদের গোদাগাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করা হয়েছে। পরে গনেশ মার্ডি ও সনাতন মার্ডির শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে হস্তান্তরের প্রক্রিয়া চলছে জানা গেছে।

এদিকে, রাজশাহী পুলিশ সুপার আলমগীর কবীর আদিবাসীদের বাড়িঘরে হামলা ও আগুন দেয়ার ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য গোদাগাড়ী মডেল থানার ওসিকে নির্দেশ দিয়েছেন।

এ ঘটনায় মঙ্গল হেবব্রম বাদী হয়ে পালসা ডাকাত পুকুর গ্রামের তাইনুসুর রহমানের ছেলে রাজ্জাক, তাহাসিন আলীর ছেলে জাহাঙ্গীর ও আলকাসসহ ২০ জনকে আসামী করে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

সংশ্লিষ্ট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবু মোকাদ্দেম আলী জানান, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। পুনরায় যেন এধরনের সন্ত্রাসী ঘটনা না ঘটে সে ব্যাপারে পুলিশ সতর্ক রয়েছে। অতি দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে তিনি জানান।

এ ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে এর সঙ্গে জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেফতার ও বিচারের দাবী জানিয়েছেন জাতীয় আদিবাসী পরিষদের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও রাজশাহী জেলা সভাপতি বিমল চন্দ্র রাজোয়াড় ও গোদাগাড়ী নাগরিক কমিটির সভাপতি অধ্যাপক শান্ত কুমার মজুমদার।

সাকি/