রাজনৈতিক সংকট দূর না হলে কঠোর আন্দোলন: উপজেলা পরিষদ

Upazila-parishadবিজয় দিবসের আগেই চলমান রাজনৈতিক অচলাবস্থা নিরসন করা না হলে জনগণের জানমালের নিরাপত্তার স্বার্থে ১৮ ডিসেম্বর সভা করে কঠোর কর্মসূচি দেওয়া হবে বলে জানালেন বাংলাদেশ উপজেলা পরিষদ অ্যাসোসিয়েশন।

 

সোমবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর-রুনি মিলনায়তনে আয়োজিত  সংবাদ সম্মেলনে অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে এ কথা জানানো হয়।

 

সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনের পক্ষ থেকে বলা হয়, ক্ষমতা ভোগকে কেন্দ্র করে দেশে চলছে অরাজকতা। নির্বাচনকে ঘিরে অক্টোবর মাসের শেষ সপ্তাহ থেকে ক্রমান্বয়ে দেশের সার্বিক পরিবেশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেছে। স্বাধীন দেশে ঘটছে নজিরবিহীন ঘটনা।

 

উপড়ে ফেলা হচ্ছে রেললাইনের স্লিপার। বাস, ট্রেন, লঞ্চ ও বিভিন্ন স্থাপনায় আগুন দিয়ে, বোমা মেরে নারী-শিশু ও সাধারণ মানুষকে পুড়িয়ে মারা হচ্ছে। রাজনৈতিক সহিংসতায় লাশের স্তুপে পরিণত হচ্ছে দেশ।

 

অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি হারুন-অর-রশীদ হাওলাদার বলেন, সর্বত্র ছড়িয়ে পড়েছে নাশকতা আর সন্ত্রাস। এ আন্দোলন ও  ধ্বংসাত্মক কার্যকলাপ ছড়িয়ে পড়েছে উপজেলা, ইউনিয়ন হয়ে গ্রাম পর্যায়ে।

 

দেশের শিক্ষা ব্যবস্থা চরম বাধাগ্রস্থ উল্লেখ করে তিনি বলেন, কয়েকবার প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা পেছানো হয়েছে। ইন্টারমিডিয়েট পাশ করা শিক্ষার্থীরা উচ্চ শিক্ষার জন্য ভর্তি পরীক্ষায় অবতীর্ণ হতে পারছে না।

 

এ সময় ক্ষমতা ও ভোটের রাজনীতির চলমান সংকট সাংবিধানিকভাবে সমাধান করে দেশ ও জনগণের জানমালের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে দুই জোটের প্রতি আহ্বান জানানো হয়।

 

সংবাদ সম্মেলনে রাজনৈতিক অচলাবস্থা নিরসনের আহ্বান জানিয়ে, শিক্ষা ও শিল্পকে অবরোধ ও হরতালের আওতামুক্ত রাখার আহ্বান জানানো হয়।

 

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ উপজেলা পরিষদ অ্যাসোসিয়েশনের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মো. শফিকুল আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক মনির চৌধুরী প্রমুখ।

 

জেইউ/এআর