দাঁত কামড়ানো অভ্যাসের শুরু স্কুলজীবনে!
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

দাঁত কামড়ানো অভ্যাসের শুরু স্কুলজীবনে!

শিশুদের দাঁত কামড়ানো বা দাঁতে দাঁত ঘষার অভ্যাস স্কুল জীবন থেকেই শুরু হয় বলে দাবি করেছেন একদল গবেষক। সম্প্রতি একটি দাতব্য স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠানের গবেষকরা এমন দাবি জানান। একইসঙ্গে শিশুদের এই অভ্যাস থেকে দূরে রাখতে বাবা-মা এবং স্কুলের শিক্ষকদের সচেতন হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন তারা।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, দাঁত কামড়ানোর ফলে মাথাব্যথা হতে পারে। ঘুমেরও মারাত্বক ব্যাঘাত ঘটায় এই বদ অভ্যাস। এছাড়া দাঁত কড়মড়ের ফলে দাঁতের এনামেল নষ্ট হওয়া, মাড়ি দুর্বল হওয়াসহ দাঁত ভেঙে যাওয়ার মতো মারাত্মক ক্ষতির আশঙ্কা থাকে।

দাঁত কামড়ানো বা ঘষার শব্দকে করাত কলের সঙ্গে তুলনা করেছেন ওই দাতব্য স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠানের বিশেষজ্ঞরা।

জার্নাল অব ওরাল রিহ্যাবিলিটেশনে প্রকাশিত একটি গবেষণায় দেখানো হয়েছে, ১৩ থেকে ১৫ বছরের বয়সী ছেলে-মেয়েরা স্কুলে থাকাকালে প্রতিদিন গড়ে ৪ বার দাঁতে দাঁত কামড়ায়। আবার রাতে এবং ঘুমানোর সময়ও এই ধরনের কাজ করে তারা।

Nail biting (1)

দাঁতে নক কামড়ানো।

ব্রাজিলে বিভিন্ন বয়সের প্রায় ৩০০ জনের ওপর এই গবেষণা করা হয়। গবেষণার ফলাফলে দেখানো হয়েছে, প্রায় ৬৫ শতাংশ শিক্ষার্থীর মধ্যে দাঁত দিয়ে দাঁত কামড়ানোর অভ্যাস রয়েছে। এছাড়া অন্যান্য বয়েসর মানুষের মধ্যে প্রায় ১৭ শতাংশ মানুষ দিনের বিভিন্ন সময়ে দাঁত কামড়ান।

ওরাল হেলথ ফাউন্ডেশনের চিকিৎসক নিগেল কার্টার বলেন, মানুষ জানে না, তারা ঘুমের সময়ও দাঁত কামড়ায়। ওই সময়ও কড়মড় করে শব্দ হয় এবং দাঁতে দাঁত ঘষা লেগে দাঁতের ওপরের অংশে ক্ষয় হয়। আবার দাঁতের গোঁড়া শিরশির করে, মাড়ি দুর্বল হওয়াসহ দাঁত ভেঙে যাওয়ার মতো মারাত্মক ক্ষতির আশঙ্কা থাকে।

দাঁতের ক্ষতিরোধে পরামর্শ দিয়ে তিনি বলেন, মনে রাখতে হবে, আমাদের শরীরের অন্য যেকোনো অংশের তুলনায় চোয়ারের পেশী ৪০ গুণ শক্তিশালী।

এর প্রতিকার-

১. দাঁতে দাঁত ঘষা লেগে দাঁতের ওপরের অংশে ক্ষয় হলে এর সমাধান করতে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ডাক্তাররা পাতলা পাত দিয়ে চিকিৎসা করেন। যা স্পিলেন্ট বা হার্ড প্লাস্টিকের তৈরি। ফলে আপনার দাঁতকে ফিট রাখে এবং শব্দ বন্ধ হয়।

২. লাইফস্টাইল পরিবর্তন; যেমন: ধূমপান ছেড়ে দেওয়া, অ্যালকোহল পান এবং স্ট্রেস নিয়ন্ত্রণ ইত্যাদির মাধ্যমে এই সমস্যার সমাধান করতে সহায়তার পরামর্শ দেওয়া হয়।

৩. দাঁত-বিশেষজ্ঞরা বলেন, যারা নিয়মিত পেশাগাত ও পরিবারিক কারণে নানা মানসিক চাপে থাকেন- তাদের দাঁত কামড়ানোর অভ্যাস হয়ে যায়। সে কারণে মানসিক চাপে থাকলে ভালো ঘুমের দিকে নজর দিতে হবে।

সূত্র : বিবিসি

অর্থসূচক/টি এম/এমই/

এই বিভাগের আরো সংবাদ