রূপালি পর্দায় আর দেখা যাবে না সুচন্দাকে
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

রূপালি পর্দায় আর দেখা যাবে না সুচন্দাকে

এক সময়ে দর্শক নন্দিত নায়িকা সুচন্দা ২০০৫ সালে সর্বশেষ জহির রায়হানের নন্দিত উপন্যাস ‘হাজার বছর ধরে’ অবলম্বনে নির্মিত চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছিলেন। এর পরে আর তাকে রূপালী পর্দায় দেখা যায়নি তাকে। আর দেখা যাওয়ার সম্ভাবনাও নেই।

কারণ অভিনয় থেকে একেবারে বিরতি নিচ্ছেন ঢাকাই চলচ্চিত্রের গুণী অভিনেত্রী সুচন্দা।

গণমাধ্যমের খবর,  ক্ষোভ-দুঃখ আর অভিমান থেকেই এমন সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

এ প্রসঙ্গে সুচন্দা বলেন, অনেকদিন থেকেই তো আমি অভিনয় করি না। কেমন আছি, কী করছি কেউ তো কোনো খোঁজখবর রাখেনি। ইচ্ছা ছিল ভালো চরিত্র পেলে মাঝে মধ্যে অভিনয় করব। কিন্তু না, সেটিও এখন করা যাবে না। চলচ্চিত্রে অভিনয় করার এখন আর পরিস্থিতি নেই। আমাদের ভুলে গেছে চলচ্চিত্রের মানুষ। আমাদের আর অভিনয়ের পরিবেশ নেই। আমাদের অভিনয় করার মতো গল্প ও চরিত্র নেই।

তিনি বলেন, সিনিয়রদের মধ্যে আমরা অল্প কয়েকজন বেঁচে আছি। বাকিরা চলে গেছেন। আমাদের জন্য যদি আলাদাভাবে চরিত্র নির্মাণের চিন্তা করা হয় তাহলে আমি না করলেও হয়তো অন্য শিল্পীরা করতে পারত। এটা ভাবার মতো কেউ তো আমাদের চলচ্চিত্রে নেই।

অভিনেত্রী সুচন্দা; একজন সফল নির্মাতাও বটে।  নির্মাণে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারও ঝুলিতে উঠেছে তার। চল্লিশ বছরেরও বেশি সময় ধরে অভিনয় করেছেন।

১৯৬৬ সালে সুভাষ দত্তের নির্মিত ‘কাগজের নৌকা’ ছবির মাধ্যমে চলচ্চিত্রে অভিষিক্ত হন সুচন্দা। পরে ১৯৬৮ সালে জহির রায়হানকে বিয়ে করেন। জহির রায়হান নির্মিত ধ্রুপদী চলচ্চিত্র ‘জীবন থেকে নেয়া’ ছাড়াও তার অভিনীত উল্লেখযোগ্য সিনেমাগুলো হচ্ছে- ‘বেহুলা’, ‘আনোয়ারা’, ‘নয়নতারা’, ‘আগুন নিয়ে খেলা’, ‘দুই ভাই’।

অর্থসূচক/ টি এম/টি

এই বিভাগের আরো সংবাদ