রপ্তানি বাড়াতে পণ্য বহুমুখীকরণে ২৮ তৈরি পোশাক প্রতিষ্ঠান
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

রপ্তানি বাড়াতে পণ্য বহুমুখীকরণে ২৮ তৈরি পোশাক প্রতিষ্ঠান

রপ্তানি আয় বাড়ানো ও পোশাকের ন্যায্যমূল্য পেতে পণ্যের বহুমূখীকরণের উদ্যোগ নিয়েছে তৈরি পোশাক খাতের ২৮টি প্রতিষ্ঠান। নেদারল্যান্ড সরকারের সিবিআই প্রকল্পের অধীনে প্রশিক্ষণ নিচ্ছে এসব প্রতিষ্ঠান।

আজ সোমবার রাজধানীর গুলশানের লেকশোর হোটেলে দিনব্যাপী তৈরি পোশাক পণ্য প্রদর্শনীতে এমন তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রদর্শনীতে পোশাক খাতের ২৮টি প্রতিষ্ঠান তাদের নতুন নতুন পণ্য প্রদর্শণ করে।

জানা গেছে, নেদারল্যান্ড সরকারের সিবিআই উন্নয়নশীল দেশগুলোর রপ্তানি বাড়াতে কাজ করে যাচ্ছে। এরই অংশ হিসেবে ৩ বছর মেয়াদী প্রকল্প গ্রহণ করেছে। এ প্রকল্পের আওতায় তারা বাংলাদেশে পোশাক খাতের ছোট ও মাঝারি ২৮টি প্রতিষ্ঠানকে বেছে নিয়েছে। সিবিআই প্রতিষ্ঠানগুলোকে ক্রেতাদের চাহিদা অনুযায়ী নতুন নতুন পণ্যের ধারণা দিয়েছে। পোশাক খাতের সক্ষমতা বাড়ানো, পণ্য বহুমূখী করাসহ ক্রেতা আকর্ষণের বিভিন্ন কৌশল ও নিজেদের সক্ষমতা তুলে ধরার উপর প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে।

এ বিষয়ে তৈরি পোশাক মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএর সিনিয়র সহ সভাপতি ফারুক হাসান বলেন, আমাদের দেশে তৈরি পোশাকখাত মূলত কটনভিক্তিক ৫টি পণ্য রপ্তানি করে থাকে। এর মধ্যে শার্ট, পোলো শার্ট, প্যান্ট, গেঞ্জি ইত্যাদি। এসব পণ্যের চাহিদা এখন কমে গেছে। এছাড়াও এ ধরনের পণ্যের মূল্যও তেমন দিচ্ছে না ক্রেতারা। তাই এখন বেশি দাম পাওয়া যাবে এমন বহুমূখী পণ্যের উপর জোর দিতে হবে। বিশ্বের ক্রেতাদের চাহিদা অনুযায়ী নতুন নতুন ডিজাইনের পোশাক উৎপাদন করতে হবে।

বাংলাদেশে নিযুক্ত নেদারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত লিওনি মার্গারেথা কুয়েলিনারি বলেন, পোশাক খাতের রপ্তানি বাড়াতে পণ্যের বহুমূখীকরণের উপর জোর দিতে হবে। এ খাতের উন্নয়নে নেদারল্যান্ড সব সময় বাংলাদেশের পাশে আছে, আগামীতেও থাকবে।

প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠান বাংলা পোশাক এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. সোহেল বলেন, এ উদ্যোগের মাধ্যমে আমাদের তৈরি বিভিন্ন পোশাক বিশ্ব বাজারে তুলে ধরছি। আমরা আমাদের অবস্থান বুঝতে পারছি। কোন কোনে দেশে আমাদের তৈরি পোশাকের চাহিদা রয়েছে তাও আমরা জানতে পারছি।

অর্থসূচক/মেহেদী/এসএম

এই বিভাগের আরো সংবাদ