ভূমিকম্পের পূর্বাভাস দেয় এমন পশুপাখি
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

ভূমিকম্পের পূর্বাভাস দেয় এমন পশুপাখি

বিজ্ঞান ও উন্নত প্রযুক্তির আশীর্বাদে বিজ্ঞানীরা হাজারো অজানাকে হাতের মুঠোয় নিয়ে আসলেও উন্নত প্রযুক্তি এখনও আবিষ্কার করতে সক্ষম হয়নি কিভাবে জানা যেতে পারে ভূমিকম্পের পূর্বাভাস। বেশ কিছু প্রাণীর হঠাৎ করেই ব্যবহারের পরিবর্তন দেখেও ভূমিকম্পের পূর্বাভাস মিলতে পারে। যেমন প্রাচীন জাপানি জেলেরা মনে করতো সমুদ্রের মাঝখানে একসাথে অনেকগুলো উড়ুক্কু মাছ চোখে পড়লে কয়েকদিনের মধ্যেই কোনো প্রাকৃতিক বিপর্যয় দেখা দেবে।

একবার চীনের হাইচেং শহরের রাস্তায় হঠাৎ অসংখ্য সাপ ও ইঁদুর দেখে বিষয়টিকে তারা বেশ গুরুত্বের সঙ্গে আমলে নিয়েছিলেন। কিন্তু পরের বছর সেই পূর্বাভাস আর দিতে পারেননি বিশেষজ্ঞরা।

১৮৯৬ সালে চীনের তিয়েনসিনে এক বিধ্বংসী ভূমিকম্প হয়। তার মাত্র চারদিন আগে সেখানকার চিড়িয়াখানায় খাঁচার ভিতর থাকা বড় প্রাণীগুলো প্রচন্ড চিৎকার আর দাপাদাপি করতে থাকে। পাখিরাও অস্থির হয়ে ওঠে। গোল্ডেন উইং ওয়ার্ব্লার নামের পাখিদের ক্ষেত্রেও বিজ্ঞানীরা লক্ষ্য করেছিলেন ভূমিকম্পের আভাস টের পেয়ে তাদের আবাসস্থল পরিবর্তন করে নিরাপদ অবস্থানে চলে যায় তারা।

আজকে ভূমিকম্প ও প্রাকৃতিক বিপর্যয় বুঝতে পারে এরকম কিছু প্রানির গতিবিধি জানাচ্ছে অর্থসূচক-

জাপানী জেলেরা উড়ুক্কু মাছ দেখলে প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের আসন্ন সংকেত বলে বুঝে নেয়।

প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের লক্ষণ বুঝতে পারে পোষা হাঁস-মুরগিরা।

প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের আগে কবুতরেরাও ভিন্ন ভিন্ন আচরণ করে থাকে।

ভূমিকম্পের পূর্বেই কুকুরের গতিবিধি পরিবর্তন দেখা যায়।

ভূমিকম্প ঘটার আগে থেকেই আঁচ করতে পারে গরুও।

ফ্ল্যামিঙ্গো পাখিও ভূমিকম্পের আভাস পায় ।

বায়ুমন্ডলে সামান্য রেডন গ্যাসের উপস্থিতিও বিড়াল বুঝতে পারে।

 

তথ্য: ইন্টারনেট

অর্থসূচক/টি এম/কে এম

এই বিভাগের আরো সংবাদ