বিশ্বের কয়েকটি বিপজ্জনক সেতু
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

বিশ্বের কয়েকটি বিপজ্জনক সেতু

সৃষ্টির আদি থেকেই মানুষ নিজ প্রয়োজনেই নিত্য প্রয়োজনীয় সব কিছু আবিষ্কারের নেশায় মগ্ন। যেখানেই বাধা পেয়েছে, সেখানেই খুঁজে বের করে নিয়েছে তার ভিন্ন পথ ও বাধা পেরুনোর উপায়। অনেক মেধা, শ্রম, আবিষ্কার ও তার প্রয়োগের মাধ্যমেই বলিষ্ঠ রূপে গড়ে উঠেছে আজকের এই আধুনিক সভ্যতা।
সভ্যতার তেমনই একটি আবিষ্কার হলো সেতু বা ব্রিজ। আদিমকাল থেকেই মানুষ যখন ছোট ছোট নদী বা ছোট ছোট পাহাড় ডিঙানোর রাস্তা বের করার উপায় খুঁজতে শুরু করে, ঠিক তখন থেকেই সহজতর উপায় হিসেবে খুঁজে নিয়েছিল কাঠের ব্যবহার। ধীরে ধীরে কাঠের সাথে জুড়ে দেওয়া হতে থাকে দড়ি। আর এভাবেই উৎপত্তি ঘটে দড়ি এবং কাঠের তৈরি সেতুর। সেখানে এসে স্থান করে নেয় পাথরের তৈরি সেতু। তার আরও পরে আসে ইট, বালি, সিমেন্ট, রড, লোহা, কংক্রিট ইত্যাদির সমন্বয়ে তৈরি আধুনিক ব্রিজ।

মাংকি ব্রিজ, মেকং ডেলটা, ভিয়েতনাম

মাংকি ব্রিজ, মেকং ডেলটা, ভিয়েতনাম

এই ব্রিজটির নাম মাংকি ব্রিজ হওয়ার কারণ হলো ব্রিজটি পার হতে গেলে আপনাকে অনেকটা বানরের অবয়বের মতোই ঝুলে ঝুলে পার হতে হবে। ব্রিজটি দেখে প্রথমেই মনে হতে পারে যে, একমাত্র বানরই পারবে ব্রিজটি পার হতে।  দুটি মাত্র বাঁশ আড়াআড়িভাবে দিয়ে চলার পথ আর সাথে দুটো হাতল নিয়ে ব্রিজটি তৈরি। ২০১২ সালের জুলাই মাসে টপ টেন সাইট ভিয়েতনামের এই ব্রিজটিকে বিশ্বের সেরা ১০টি বিপদজনক ব্রিজের আওতাভুক্তকরণে ভোট দেয়।

হুসাইনী ঝুলন্ত সেতু, উত্তর পাকিস্তান

হুসাইনী ঝুলন্ত সেতু, উত্তর পাকিস্তান

এই সেতুটি পাকিস্তানের উত্তর অংশের খুব প্রত্যন্ত অঞ্চলে খুঁজে পাওয়া গিয়েছে। সেতুটি খুব নিম্নমানের দড়ি ও কাঠের উপাদানে তৈরি। প্রতিকূল আবহাওয়াতে সেতুর নিচের নদীর পানির স্রোতে সেতুটিকে ভাসিয়ে নিয়ে যাওয়ার আশংকা উড়িয়ে দেওয়া যায় না।

ভাইন ব্রিজ, আইয়্যা ভ্যালী, জাপান

ভাইন ব্রিজ, আইয়্যা ভ্যালী, জাপান

এই ব্রিজটি অবস্থিত জাপানের আইয়্যা উপত্যকায়। শিকোকু হলো জাপানের চারটি প্রধান দ্বীপ যেখানে এই ব্রিজটি রয়েছে। কেউ সঠিকভাবে বলতে পারে না যে, ব্রিজটি আসলে কে বা কারা তৈরি করেছিল। এলাকাবাসীর ধারণা এই ব্রিজটি ঐশ্বরিকভাবে সৃষ্ট একটি ব্রিজ যা আইয়্যা নদীর উপর দিয়ে চলে গিয়েছে। ব্রিজটি যদিও বিপদজনক, তবুও সুবিধা হলো ৩ বছরে একবার ব্রিজটি মেরামত করা হয়।

ঘাসা ঝুলন্ত ব্রিজ, নেপাল

ঘাসা ঝুলন্ত ব্রিজ, নেপাল

ব্রিজটি নেপালের ঘাসা এলাকায় অবস্থিত একটি অত্যন্ত বিপজ্জনক ব্রিজের মাঝে অন্যতম। এটি খুবই সরু এবং ব্রিজটি তৈরির উপকরণও তেমন ভালো না বলা চলে। বিপজ্জনক জানার পরেও প্রতিদিন প্রচুর মানুষ যাতায়াত করে ব্রিজটি দিয়ে। শুধুমাত্র মানুষই নয় পশুরাও যাতায়াত করে ব্রিজটি দিয়ে। ব্রিজটি হিমালয়ের এতটাই কাছে যে ব্রিজে উঠলে হিমালয় চোখে পড়বেই।

তামান নেগারা ন্যাশনাল পার্ক ব্রিজ, মালয়েশিয়া

তামান নেগারা ন্যাশনাল পার্ক ব্রিজ, মালয়েশিয়া

মালয়েশিয়ার তামান নেগারা ন্যশানাল পার্কে ৫৫০ মিটার এলাকা জুড়ে বিস্তৃত ৪০ মিটার উঁচুতে এই সেতুটি অবস্থিত। সেতুটি দিয়ে প্রতিদিন প্রায় ১০০ জনেরও বেশি স্থানীয় মানুষ ও পর্যটক যাতায়াত করেন। কারণ এক এলাকা থেকে আরেক এলাকায় যাতায়াত করার জন্য এই সেতুই একমাত্র অবলম্বন।
যদিও বর্ষার সময় সেতুটি ভেজা ও মারাত্মক বিপজ্জনক অবস্থায় থাকে। তবুও থেমে থাকে না চলাচল।

তথ্য : ইন্টারনেট

অর্থসূচক/ টিএম/কে এম

এই বিভাগের আরো সংবাদ