ব্রাজিলে পণ্য রপ্তানিতে আয় কমেছে ১৭.৬৪%
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

ব্রাজিলে পণ্য রপ্তানিতে আয় কমেছে ১৭.৬৪%

চলতি ২০১৬-১৭ অর্থবছরের জুলাই-মে মেয়াদে (প্রথম ১১ মাসে) ব্রাজিলে ১০ কোটি ৬৩ লাখ ৭০ হাজার মার্কিন ডলার বা প্রায় ৮৬১ কোটি টাকার পণ্য রপ্তানি করেছে বাংলাদেশ। যা ২০১৫-১৬ অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় ১৭ দশমিক ৬৪ শতাংশ কম।

রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) সর্বশেষ হালনাগাদ থেকে এই তথ্য জানা গেছে। এতে আরও জানানো হয়েছে, ২০১৫-১৬ অর্থবছরে ব্রাজিলে ১৩ কোটি ৫৬ লাখ মার্কিন ডলারের পণ্য রপ্তানি করেছিল বাংলাদেশ। এর মধ্যে ওই বছরের জুলাই-মে মেয়াদে ওই দেশে পণ্য রপ্তানিতে বাংলাদেশের আয় হয়েছিল ১২ কোটি ৯১ লাখ ৬০ হাজার মার্কিন ডলার।

Chittagong Port_6

চট্টগ্রাম বন্দর। ছবি: মহুবার রহমান

২০১৬-১৭ অর্থবছরের জুলাই-মে মেয়াদে ব্রিটেনে ৩২৫ কোটি ডলার বা প্রায় ২৬ হাজার ২৬১ কোটি টাকার পণ্য রপ্তানি করা হয়েছে। যা এর আগের অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় ৫ দশমিক ৬০ শতাংশ কম। ২০১৫-১৬ অর্থবছরে ব্রিটেনে ৩৮১ কোটি ডলারের পণ্য রপ্তানি হয়েছিল। এর মধ্যে অর্থবছরের প্রথম ১১ মাসে ওই দেশে পণ্য রপ্তানিতে আয় হয়েছিল ৩৪৪ কোটি ডলার।

চলতি অর্থবছরের প্রথম ১১ মাসে অস্ট্রেলিয়ায় ৬০ কোটি ৩০ লাখ মার্কিন ডলার বা প্রায় ৪ হাজার ৮৭১ কোটি টাকার পণ্য রপ্তানি করেছে বাংলাদেশ। যা ২০১৫-১৬ অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় ৬ দশমিক ৫ শতাংশ কম। ২০১৫-১৬ অর্থবছরে দেশটিতে ৭০ কোটি ৫৬ লাখ ৩০ হাজার মার্কিন ডলারের পণ্য রপ্তানি করেছিল বাংলাদেশ। এর মধ্যে জুলাই-মে মেয়াদে ওই দেশে পণ্য রপ্তানিতে বাংলাদেশের আয় হয়েছিল ৬৪ কোটি ৪৯ লাখ ১০ হাজার মার্কিন ডলার।

২০১৬-১৭ অর্থবছরের জুলাই-মে মেয়াদে কানাডায় ৯৬ কোটি ১ লাখ ৯০ হাজার মার্কিন ডলার বা প্রায় ৭ হাজার ৭৫০ কোটি টাকার পণ্য রপ্তানি করেছে বাংলাদেশ। যা ২০১৫-১৬ অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় ১ দশমিক ৯৭ শতাংশ কম। ২০১৫-১৬ অর্থবছরে জুলাই-মে মেয়াদে ওই দেশে পণ্য রপ্তানিতে বাংলাদেশের আয় হয়েছিল ৯৭ কোটি ৯৪ লাখ ৬০ হাজার মার্কিন ডলার।

অন্যদিকে ২০১৬-১৭ অর্থবছরের প্রথম ১১ মাসে প্রতিবেশী দেশ ভারত, রাশিয়া, চীন, জার্মানিতে পণ্য রপ্তানি আয় বেড়েছে।

জুন মাসে প্রকাশিত হালনাগাদ প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, ২০১৫-১৬ অর্থবছরে সব ধরনের পণ্য রপ্তানিতে বৈদেশিক মুদ্রা আয় হয়েছিল মোট ৩ হাজার ৪২৫ কোটি ৭১ লাখ ৮০ হাজার ডলার। ২০১৬-১৭ অর্থবছরে রপ্তানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৩ হাজার ৭০০ কোটি ডলার।

চলতি অর্থবছরের প্রথম ১১ মাস অর্থাৎ জুলাই-মে মেয়াদে রপ্তানি আয় লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল ৩ হাজার ৩৩৫ কোটি ৩০ লাখ মার্কিন ডলার। এর বিপরীতে আয় হয়েছে ৩ হাজার ১৭৯ কোটি ৭ লাখ ৫০ হাজার ডলার; যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৪ দশমিক ৬৮ শতাংশ কম।

২০১৬-১৭ অর্থবছরের মে মাসে পণ্য রপ্তানিতে মোট আয় হয়েছে ৩০৬ কোটি ৯০ লাখ ৪০ হাজার মার্কিন ডলার বা ২৪ হাজার ৭৫০ কোটি ৬২ লাখ টাকা। যা এই মাসের রপ্তানি আয় লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় ৮ দশমিক ৫২ শতাংশ কম। সদ্য সমাপ্ত মাসে ৩৩৫ কোটি ৫০ লাখ মার্কিন ডলারের পণ্য রপ্তানি লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল।

অর্থসূচক/এমই/

এই বিভাগের আরো সংবাদ