জুয়েলারি শিল্পে জড়িতদের হয়রানি না করার নির্দেশ
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

জুয়েলারি শিল্পে জড়িতদের হয়রানি না করার নির্দেশ

জুয়েলারি শিল্পের সঙ্গে জড়িত কাউকে কোনো প্রকার হয়রানি না করার নির্দেশ দিয়েছেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ড চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমান।

nbr chairman

বক্তব্য রাখছেন এনবিআর চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমান। ছবি মহুবার রহমান

আজ মঙ্গলবার দুপুরে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) সম্মেলন কক্ষে বাংলাদেশ জুয়েলারি সমিতি (বাজুস) প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক শেষে এই নির্দেশ দেন তিনি।

এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, বাংলাদেশে জুয়েলারি শিল্প অর্থনীতি ও রাজস্বে গুরুত্বপূর্ণ খাত। এই খাতের বিকাশমান অগ্রগতি ধরে রাখার জন্য সর্বাত্মক সহযোগিতা করবে এনবিআর।

স্বর্ণ আমদানির ক্ষেত্রে একটি নীতিমালা ও স্বর্ণ ব্যবসায়ীদের অহেতুক হয়রানি বন্ধ করতে এনবিআরের প্রতি অনুরোধ জানান বাজুস প্রতিনিধিরা।

প্রতিনিধিদের আশ্বস্ত করে মো. নজিবুর রহমান বলেন, স্বর্ণ ব্যবসায়ীদের জন্য এনবিআর একটি নীতিমালা করছে। স্বর্ণ ব্যবসার আড়ালে যাতে কালো টাকার লেনদেন না হয়- সেদিকে ব্যবসায়ীদের নজর রাখতে হবে।

প্রসঙ্গত, বনানীতে দুই ছাত্রীকে ধর্ষণের মামলার প্রধান আসামি সাফাত আহমেদের বাবা দিলদার আহমেদ আপন জুয়েলার্সের অন্যতম মালিক। এই পরিবারের বিরুদ্ধে সোনা চোরাচালানের অভিযোগ থাকায় জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের নির্দেশে একটি অনুসন্ধান কমিটি করে তদন্ত শুরু করে শুল্ক গোয়েন্দা অধিদপ্তর।

শুল্ক ফাঁকি ও অবৈধ স্বর্ণ রাখার অভিযোগে গত ১৪ মে আপন জুয়েলার্সের সীমান্ত স্কয়ার, উত্তরা, মৌছাক, সুবাস্তু ও ডিএনসিসি শাখা সিলগালা করা হয়েছিল। এর ২১ দিন পর গতকাল রোববার ওই ৫ শো-রুমে থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে অবৈধ স্বর্ণালঙ্কার ও হীরা জব্দ করে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর। প্রথম থেকে সাড়ে ১৩ মণ অবৈধ স্বর্ণ জব্দের কথা বলা হলেও গতকাল ১৫.১৩ মণ স্বর্ণালঙ্কার, ৭ হাজার ৩৬৯টি হীরার অলঙ্কার, ৬৭ লাখ ৪০ হাজার টাকা এবং ১০০ ডলার জব্দ করা হয়। সেগুলো কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ভল্টে জমা দেওয়া হয়েছে।

আপন জুয়েলার্সের বিক্রয় কেন্দ্রে অভিযানের পর দেশের অন্যান্য স্বর্ণের দোকানেও অভিযানের দাবি তুলেছে বিভিন্ন মহল। এর ফলশ্রুতিতে শুল্ক গোয়েন্দা অধিদপ্তরের অভিযান বন্ধ এবং আপন জুয়েলার্সের স্বর্ণ ফেরৎ দেওয়ার দাবিতে দুই দফায় ধর্মঘট ডেকেছিল বাজুস। তবে প্রথম দফায় প্রায় ৬ ঘণ্টা ধর্মঘট পালিত হলেও দ্বিতীয় দফায় ধর্মঘট শুরুর আগেই তার প্রত্যাহার করা হয়েছিল।

অর্থসূচক/রহমত/এমই/

এই বিভাগের আরো সংবাদ