মাদার ভেসেল থেকে খালাস বন্ধ, দুর্ঘটনার কবলে ৪ লাইটারেজ জাহাজ
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

মাদার ভেসেল থেকে খালাস বন্ধ, দুর্ঘটনার কবলে ৪ লাইটারেজ জাহাজ

চট্টগ্রামে নিম্নচাপের প্রভাবে সমুদ্র উত্তাল থাকায় বন্দরের বহিঃনোঙরে পণ্য খালাস ব্যহত হচ্ছে। এছাড়া সমুদ্রে প্রবল ঢেউ ও বাতাসের কারণে চারটি পণ্য বোঝাই জাহাজ নোঙর ছিড়ে দুর্ঘটনার কবলে পড়েছে বলে জানা গেছে।

বন্দর সূত্রে জানা গেছে, আজ সোমবার ভোর থেকে সন্ধ্যা সাতটা পর্যন্ত সাগরে জোয়ারের পাশাপাশি প্রবল ঢেউ ও বাতাসের তীব্রতার কারণে এ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে।

বন্দর নিয়ন্ত্রণ কক্ষ সূত্রে জানা গেছে, আজ সকাল সাতটার দিকে মদিনা গ্রুপের লাইটার জাহাজ ‘হাজী কায়েস’ নামের একটি লাইটারেজ জাহাজের তলা ফেটে বন্দর চ্যানেলে আটকা পড়ে। প্রায় ১৭০০ টন সিমেন্ট ক্লিংকার নিয়ে জাহাজটির অর্ধেক অংশ ডুবে যায়। পরবর্তীতে দুপুরের দিকে জাহাজটিকে টেনে পাশের জেলে পাড়া চরের সৈকতের কাছাকাছি রাখা হয়েছে।

একই সময়ে ‘অলিম্পিক-২’নামের ক্লিংকারবাহী জাহাজ বহিনোঙরে থেকে ঝড়ো বাতাসে পতেঙ্গা সৈকতে ওঠে যায়। ওই এলাকায়ই দুপুরে গম বোঝাই লাইটার জাহাজ ‘এমডি অনন্যা-২’বেড়িবাঁধের উপর উঠে যায়। এছাড়া ‘ব্লু ভিউ’ নামের আরেকটি জাহাজ নোঙরে ছিড়ে আটকে পড়েছে। তবে এসব জাহাজে কী পরিমাণ পণ্য রয়েছে এবং ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ সন্ধ্যা পর্যন্ত নির্ণয় করা সম্ভব হয়নি।

লাইটার জাহাজ শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক নবী আলম জানান, দুর্ঘটনা কবলিত চারটি জাহাজে যে কয়েকজন নাবিক ছিল তাদের নিরাপদে উদ্ধার করা হয়েছে।

বন্দর সূত্রে জানা গেছে, সোমবার সকাল আটটা পর্যন্ত চট্টগ্রাম বন্দরে বহিঃনোঙরে ৩৮ টি পণ্য বোঝাই মাদার ভেসেল (বড় জাহাজ) হতে পণ্য খালাস কার্যক্রম চলছিল। তবে সাগরের উত্তাল হওয়ার এসব জাহাজ হতে পণ্য খালাস সাময়িকভাবে বন্ধ রাখা হয়েছে। একই সময়ে খালাসের অপেক্ষায় রয়েছে ৪৬ পণ্যভর্তি মাদার ভেসেল খালাসের অপেক্ষায় রয়েছে। তবে বন্দরের অভন্তরীণ জেটিতে থাকা ১৮ টি জাহাজ থেকে সকালে পণ্য উঠা-নামা স্বাভাবিক থাকলেও দুপুরের পর থেকে কার্যক্রম ব্যহত হচ্ছে।

চট্টগ্রাম বন্দরে সদস্য (পরিকল্পনা ও প্রশাসন) জাফর আলম বলেন, সাগর উত্তালের কারণে বহিনোঙরে পণ্য খালাস সাময়িক বিঘ্নিত হচ্ছে। প্রবল ঢেউ ও বাতাসের তীব্রতার কারণে লাইটার জাহাজ দুর্ঘটনার কবলে পড়েছে বলে জানতে পেরেছি। এরমধ্যে বন্দর চ্যানেলের জন্য ঝুঁকিতে রয়েছে মদিনা গ্রুপের ক্লিংকারবাহী জাহাজটি। জাহাজটি দ্রুত দুর্ঘটনাস্থল থেকে ২৪ ঘন্টার মধ্যে সরিয়ে নিতে মালিকপক্ষকে জানানো হয়েছে। তবে সন্ধ্যা পর্যন্ত এসব জাহাজের কারণে বন্দর চ্যানেলের কোনো সমস্যা হয়নি।

দেবু/টি

এই বিভাগের আরো সংবাদ