'আটক নব্য জেএমবির এক সদস্য তারাবিহ নামাজ পড়াতেন’
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

‘আটক নব্য জেএমবির এক সদস্য তারাবিহ নামাজ পড়াতেন’

রাজধানীর নিউ মার্কেট এলাকা থেকে আটক নব্য জেএমবির ছয় সদস্যের মধ্যে একজন নিউ মার্কেট এলাকার একটি মসজিদে তারাবির নামাজ পড়াতেন বলে জানিয়েছেন পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম। তার নাম মোহাম্মদুল্লাহ আদনান (১৯)।

আটক অন্যরা হলেন, জাহিদুল ইসলাম ওরফে জোহা ওরফে বোতল ওরফে মাসরুর (২৩), মেহেদী হাসান ঈমন ওরফে আবু হামজা (২১), শামসুদ্দীন আল আমিন ওরফে আবু আহমদ, খালিদ সাইফুল্লাহ ওরফে আবু মুসাব (১৯) ও আবু বকর সিদ্দিক ওরফে আবু মোহাম্মদ (১৯)।

ছবিটি প্রতীকী

আজ সোমবার দুপুরে রাজধানীর মিন্টো রোডে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান মনিরুল ইসলাম।

তিনি বলেন, রোববার গভীর রাতে নিউ মার্কেট এলাকা থেকে আদনানসহ নব্য জেএমবির ওই ছয় সদস্যকে আটক করে সিটিটিসি। আদনান নিউ মার্কেট এলাকার একটি মসজিদে তারাবির নামাজ পড়াতেন। সে সুযোগে তারা ১০ থেকে ১১ জন সদস্য ওই মসজিদে বসে বৈঠক করতেন।

আটকৃতদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের ভিত্তিতে মনিরুল ইসলাম বলেন, তাদের পরিকল্পনা ছিল জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে ফতোয়া দেওয়া শীর্ষ পর্যায়ের একজন আলেমকে হত্যা করা। উগ্রবাদবিরোধী আলেম-ওলামাদের হত্যার পরিকল্পনার অংশ হিসেবে তাদের মধ্য থেকে জাহিদুল এবং আবু বকর ইতোমধ্যে একজন বিশিষ্ট ওলামার বাড়ি রেকি করেছিলেন।

জাহিদুল নব্য জেএমবির এই গ্রুপটির সমন্বয়ক হিসেবে কাজ করছিলেন উল্লেখ করে মনিরুল ইসলাম বলেন, আন্তর্জাতিক বিভিন্ন জঙ্গি সংগঠন এই রমজান মাসে বিশ্বব্যাপী মুরতাদদের হত্যার আহ্বান জানিয়েছে। তাদের পরিকল্পনা বাস্তবায়নের জন্য বিভিন্ন ক্ষেত্রে সাদী ওরফে আবু জান্দাল ওরফে আবু দারদা ওরফে আবু সহযোগিতা করছিলেন।

আইয়ুব বাচ্চু ওরফে মাখনদা ওরফে লালভাই এবং আর্চারের নির্দেশনা অনুযায়ী তারা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছিলেন বলেও জানান মনিরুল ইসলাম।

সিটিটিসি প্রধান বলেন,  নথিপত্র  ও গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে আমরা জনতে পারি, নব্য জেএমবি বর্তমানে পাঁচজন সূরা সদস্য রয়েছেন। তাদের একজনের নাম সোহেল মাহফুজ ওরফে হাতকাটা মাহফুজ। আর তাদের পরের স্তরের আরেক নেতা হলেন সাদী ওরফে আবু জান্দাল ওরফে আবু দারদা ওরফে আবু, যিনি অস্ত্র ও অন্যান্য সহযোগিতা দিয়ে গ্রেপ্তার ওই ছয়জনকে সংগঠিত করেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যদের মধ্যে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের উপ-কমিশনার মহিবুল ইসলাম, রাকিব উদ্দিন, প্রলয় কুমার জোয়ার্দার ও গণমাধ্যম শাখার উপ-কমিশনার মো. মাসুদুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

অর্থসূচক/মুন্নাফ

এই বিভাগের আরো সংবাদ