ঈদ: দৈনিক গড়ে ২০ হাজার যাত্রী পরিবহন করবে রেলওয়ে পূর্বাঞ্চল
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

ঈদ: দৈনিক গড়ে ২০ হাজার যাত্রী পরিবহন করবে রেলওয়ে পূর্বাঞ্চল

আসন্ন ঈদুল ফিতরে ঘরমুখো মানুষের বাড়ি ফেরা নিশ্চিত করতে দৈনিক গড়ে ২০ হাজারের বেশি যাত্রী পরিবহনের পরিকল্পনা করেছে রেলওয়ে পূর্বাঞ্চল( চট্টগ্রাম জোন)। নিয়মিত ট্রেন সার্ভিসের পাশাপাশি ঈদ উপলক্ষে বিশেষ ট্রেন ও অতিরিক্ত কোচ যুক্ত করার মাধ্যমে এই যাত্রী পরিবহন করা সম্ভব হবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

পূর্বাঞ্চলের পরিবহন বিভাগ সূত্র জানিয়েছে, উপলক্ষে প্রায় ৮৬টি অতিরিক্ত কোচ সংযোজন করা হবে। এছাড়া বিভিন্ন রুটের  ট্রেন ও কোচ সংযোজনের মাধ্যমে বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

Train ticket2

ঈদে যাত্রার টিকেট পাওয়া কয়েকজন।

রেলওয়ের পূর্বাঞ্চলের দেওয়া তথ্য মতে, ঈদ উপলক্ষে বিশেষ ব্যবস্থায় যাত্রী পরিবহনে ২০টি আন্তঃনগর, ১০টি  মেইল ট্রেন ও চারটি বিশেষ ট্রেন সার্ভিস রাখা হবে। কোচ ও ইঞ্জিন সংকটের কারণে অধিকাংশ ট্রেনই স্ট্যান্ডার্ড কম্পোজিশনের থেকে কম কোচ চলাচল করলেও ঈদকে সামনে রেখে প্রায় প্রতিটি ট্রেনেই নিয়মিত কোচের পাশাপাশি অতিরিক্ত কোচ যুক্ত করা হচ্ছে। নিয়মিত ট্রেনগুলোতে স্বাভাবিক যাত্রী পরিবহনের সক্ষমতা প্রায় ১০ হাজার। তবে ঈদ উপলক্ষে বিশেষ ট্রেন ও অন্যান্য কোচ যুক্ত করার ফলে যাত্রী পরিবহন ক্ষমতা প্রায় দ্বিগুণ হবে।

এই বিষয়ে রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের মহাব্যবস্থাপক আবদুল হাই জানিয়েছেন, আজ সোমবার থেকে ঈদের অগ্রিম টিকেট বিক্রি শুরু হয়েছে। ২০১৬ সালের শেষ দিকে এবং চলতি বছরের শুরুতে রেলের বহরে নতুন কিছু কোচ যুক্ত হওয়ায় এই বছর কোচ ও আসন সংকট অনেক কমে যাবে। এছাড়া ওয়ার্কশপ থেকে সরবরাহ করা অতিরিক্ত কোচের মাধ্যমে অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহন সম্ভব হবে। ঈদে আসন সংখ্যার বাইরেও আনেক যাত্রী দাঁড়িয়ে গন্তব্যে যান। সুতরাং ঈদের আগে প্রতিদিন ২০ হাজারের বেশি যাত্রী পরিবহন সম্ভব।

পরিবহন বিভাগের তথ্য মতে, ২০টি আন্তঃনগর ট্রেনের মধ্যে সুবর্ণ এক্সপ্রেস ট্রেনে যাত্রীর আসন সংখ্যা ৮৯৯; মহানগর  গোধূলীতে ৭০৯; পাহাড়িকায় ৬৮০; মহানগর এক্সপ্রেসে ৭৫১; উদয়ন এক্সপ্রেসে ৬০৪; মেঘনা এক্সপ্রেসে ৯১৭; তূর্ণা নীশিতায় ৬৬৮; বিজয় এক্সপ্রেসে ৬০৩; সোনার বাংলা এক্সপ্রেসে ৫৮৪ এবং চট্টলায় ৪৮১টিসহ মোট ৬ হাজার ৮৯৬ আসন রয়েছে। অন্যদিকে সাগরিকা এক্সপ্রেস, কর্ণফুলী এক্সপ্রেস, ময়মনসিংহ এক্সপ্রেস, জালালাবাদ এক্সপ্রেস ও ঢাকা মেইলসহ মোট পাঁচটি মেইল ট্রেনের আসন সংখ্যা সাড়ে ৫ হাজার। ঈদ উপলক্ষে ৪টি স্পেশাল ট্রেনের মাধ্যমে আরও ৮ হাজার যাত্রী পরিবহনের পরিকল্পনা করা হয়েছে। এছাড়া ঈদে আন্তঃনগর ট্রেনগুলোতে প্রায় দ্বিগুণ যাত্রী পরিবহন করতে হয়।

জানা গেছে, ঈদের আগে ২৩ জুন থেকে চট্টগ্রাম চাঁদপুর রুটে ৪টি স্পেশাল ট্রেন চলাচল করবে। চাঁদপুর স্পেশাল-১ ট্রেন সকাল সাড়ে ১১টায় এবং চাঁদপুর স্পেশাল-২ বিকেল সাড়ে ৩টায় চট্টগ্রাম স্টেশন ছেড়ে যাবে। আজ ১২ জুন দেওয়া হবে ২১ জুনে ভ্রমণের টিকেট। ১৩, ১৪, ১৫ ও ১৬ জুনে দেওয়া হবে যথাক্রমে ২২, ২৩, ২৪ ও ২৫ জুনে যাত্রার টিকেট। একইভাবে ১৯, ২০, ২১, ২২ ও ২৩ জুনে যথাক্রমে ২৮, ২৯, ৩০ জুন এবং ১ ও ২ জুলাই তারিখে ভ্রমণের ফিরতি টিকেট দেওয়া হবে।

অর্থসূচক/দেবব্রত/এমই/

এই বিভাগের আরো সংবাদ